ঢাকা   শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  দিনাজপুরে বিপৎসীমার কাছাকাছি ৩ নদীর পানি (জেলার খবর)         সিরাজগঞ্জে বিপৎসীমার ওপরে যমুনার পানি (জেলার খবর)        এরশাদের প্রতি দলীয় নেতাকর্মীদের শেষ শ্রদ্ধা (জাতীয়)        সংসদ প্রাঙ্গনে এরশাদের জানাজায় রাষ্ট্রপতি (জাতীয়)        ভালো শিক্ষকদের ক্লাস সম্প্রচারে টিভি চ্যানেল খোলার চিন্তা: শিক্ষামন্ত্রী (শিক্ষা)        পরিকল্পিত শিল্প এলাকার বাইরে বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগ নয়: প্রতিমন্ত্রী (জাতীয়)        রাজস্ব বাড়াতে জেলা-উপজেলায় কমিটি চান ডিসিরা (জাতীয়)        শেষ হলো পদ্মা সেতুর পাইল বসানোর কাজ (জাতীয়)        বৃষ্টি ঝরবে আরো দু’তিন দিন (জাতীয়)        সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, পানিবন্দি লাখো মানুষ (জেলার খবর)      

জয়পুরহাটে রাস্তা সংস্কারের দাবিতে পরিবহন ধর্মঘট

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:19:17 am, 2019-07-12 |  দেখা হয়েছে: 6 বার।

আজ ডেক্সঃ জয়পুরহাটের তিনটি আঞ্চলিক সড়কের উন্নয়ন কাজ দ্রুত সম্পন্নের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠন। দ্রুত বেহাল দশার সড়ক সংস্কার দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পরিবহন ধর্মঘট পালন করেছেন তারা। সকাল থেকে শুরু হওয়া ধর্মঘট চলবে সন্ধ্যা পর্যন্ত। এ ব্যাপারে জয়পুরহাট জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী বলেন, জয়পুরহাট-মোকামতলা, জয়পুরহাট-আক্কেলপুর ও জয়পুরহাট-ক্ষেতলাল এ তিনটি আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়নের কাজ ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে শুরু হয়। দরপত্র অনুযায়ী যা শেষ হওয়ার কথা ছিল চলতি বছরের জুন মাসে। কিন্তু কাজ শেষ না হওয়ায় ওই সড়কগুলোতে বর্ষার পানি জমে কাঁদা পানিতে একাকার হয়ে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। অন্যদিকে সড়কগুলোর দুই পাশের গাছগুলো আগে-ভাগে কেটে পুরো সড়কের পুরনো পিচঢালাই তুলে ফেলা কারণে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে গিয়ে দুর্ঘটনার পাশাপাশি প্রায়ই বিকল হয়ে পড়ছে বিভিন্ন যানবাহন। তাই সড়কগুলো দ্রুত সংস্কারের দাবিতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠন যৌথভাবে আন্দোলনে নেমেছে। এ ধর্মঘটের পরও যদি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের টনক না নড়ে, তাহলে গোটা উত্তরবঙ্গে পরিবহন ধর্মঘট পালন করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের বলেও জানান এ শ্রমিক নেতা। এ ব্যাপারে জয়পুরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী তানভির সিদ্দিক বলেন, ঠিকাদারদের কারণেই কাজগুলো সম্পন্ন করা যায়নি। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে কাজগুলো শেষ করার চেষ্টা করছি। এরআগে পরিবহন শ্রমিকরা সংবাদ সম্মেলন এবং মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেন।