ঢাকা   ০৪ জুলাই ২০২০ | ২০ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সভা (জাতীয়)        স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সরিয়ে দেয়ার দাবি সংসদে (জাতীয়)        এইচএসসির মূল সনদ বিতরণ আজ থেকে (শিক্ষা)        ২৪ ঘণ্টায় নতুন মৃত্যু ৪১, আরও ৩৭৭৫ করোনা রোগী শনাক্ত (জাতীয়)        চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে পৃথিবী, এগিয়ে যাবো আমরাও - তথ্য প্রতিমন্ত্রী (জামালপুরের খবর)        জামালপুর পৌরসভার ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ১৩২ কোটি ৩৪ লক্ষ ২৪ হাজার টাকার বাজেট ঘোষনা (জামালপুরের খবর)        মেলান্দহ পৌরসভার পানি শোধানাগার নির্মাণ কাজের উদ্বোধন (জামালপুরের খবর)        মাদারগঞ্জ পৌরসভার নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করলেন মির্জা আজম এমপি (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে বন্যার পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু (জামালপুরের খবর)        জামালপুর সদর উপজেলায় বন্যার পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে ফসলি জমি (জামালপুরের খবর)      

সাতক্ষীরায় আ. লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

Logo Missing
প্রকাশিত: 11:22:41 pm, 2019-07-22 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আজ ডেক্সঃ সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কদমতলা এলাকায় আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নজরুল ইসলামকে (৫০) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এর আগে ২০১৩ সালে তাঁর বড় ভাই ও ২০১৭ সালে এক ভাতিজাকে খুন করে দুর্বৃত্তরা। সাতক্ষীরা সদর থানা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইলতুৎমিশ গতকাল সোমবার বলেন, বেলা ১১টায় নজরুল ইসলামের লাশ শহর থেকে তিন কিলোমিটার দূরে কদমতলার হাজামপাড়ায় পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। নজরুল ইসলামের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে, যোগ করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার। আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান বলেন, নজরুল ইসলাম বাজার করার জন্য নিজের বাড়ি কুচপুকুর থেকে মোটরসাইকেলে করে কদমতলায় গিয়েছিলেন। বাজার নিয়ে ফেরার পথে ইটভাটার পাশ থেকে কে বা কারা তাঁর পেছন থেকে দুটি গুলি করে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মোটরসাইকেল চালিয়ে দ্রুত এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন নজরুল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হাজামপাড়া এলাকায় এসে লুটিয়ে পড়েন তিনি। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে হাবিবুর রহমান আরো বলেন, ঘাতকরা মোটরসাইকেলে করে এ হত্যাকা- চালিয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, নজরুল ইসলামের পরিবারের ওপর ২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত মোট নয়বার সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। ২০১৩ সালের ৫ ডিসেম্বর নজরুলের বড় ভাই সিরাজুল ইসলামকে ও ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সিরাজুল ইসলামের ছেলে যুবলীগ নেতা রাসেল কবিরকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এসব হামলায় নজরুল ইসলাম নিজে তিনবার এবং তাঁর বোন শাহানা খাতুন, শাহানার স্বামী জাহান আলী, নজরুলের ভগ্নিপতি কাওসার আলী, ভাগ্নে সিমল, আত্মীয় ইউসুফ আলী আহত হন। এসব হামলার পর নজরুল ইসলাম নিরাপত্তার জন্য দীর্ঘদিন সাতক্ষীরা থানায় রাত্রিযাপন করতেন। এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতা নজরুলকে গুলি করে হত্যার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম। তাঁরা অবিলম্বে ঘাতকদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।