ঢাকা   ২৩ অক্টোবর ২০১৯ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  ইলিশ শিকারের দায়ে বরিশালের ৩ পুলিশ বরখাস্ত (বরিশাল)        ঢাকায় নদীর তীরে প্লট-ফ্ল্যাট কেনায় নৌমন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা (ঢাকা)        জয়পুরহাটে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যায় ৭ জনের মৃত্যুদন্ড (জেলার খবর)        চবির শাটল ট্রেনের বগির নামে প্ল্যাকার্ড-স্লোগান দেওয়ায় ছাত্রলীগের নিষেধাজ্ঞা (রাজনীতি)        পরিবেশ দূষণ করায় চট্টগ্রামে তিন কারখানাকে প্রায় ৭ লাখ টাকা জরিমানা (চট্রগ্রাম)        সাময়িক বরখাস্ত হলেন ডিসি অফিসের অফিস সহায়ক সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত (জামালপুরের খবর)        শেরপুরে পুলিশ অ্যাসল্টের মামলা, গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য এলাকা (জেলার খবর)        দেওয়ানগঞ্জ বিশেষ শিক্ষা বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বিনা মুল্যে চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্পের উদ্বোধন (জামালপুরের খবর)        বিপ্লব চন্দ্রের শাস্তির দাবি ও ৪ জনকে হত্যার প্রতিবাদে জামালপুরে তৌহিদী জনতার বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ (জামালপুরের খবর)      

বগুড়ায় আসামির হাত-পা ভেঙে দেওয়ার পর গুলিতে আহত ২

Logo Missing
প্রকাশিত: 11:21:25 pm, 2019-08-03 |  দেখা হয়েছে: 4 বার।

আজ ডেক্সঃ বগুড়ায় হত্যা মামলার এক আসামির হাত-পা ভেঙে দেওয়ার জেরে দুই পক্ষের উত্তেজনার মধ্যে গুলিতে দুইজন আহত হয়েছেন। নন্দীগ্রাম থানার ওসি শওকত কবির জানান, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে বর্ষণ চেচুয়াপাড়া গ্রামের এ ঘটনায় একজনকে পিস্তলসহ আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া এলাকাবাসী তার মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দিয়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। আহতরা হলেন ওই গ্রামের জামাল হোসেন (৪০) ও পুটু মিয়া (৫০)। তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসী জানান, ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর ওই গ্রামের হায়দারকে হত্যা করা হয়। হত্যা মামলার আসামি আনোয়ার হোসেন শাহীনকে বুধবার গভীর রাতে হায়দারের স্বজনরা বাড়ি ঢুকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে দুই পা ও এক হাত ভেঙে দেয়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ ঘটনার পর থেকে গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। ওসি শওকত বলেন, হাত-পা ভেঙে দেওয়ার এ ঘটনায় গত শুক্রবার দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়। এর মধ্যে গুলির ঘটনা ঘটে। এ সময় গ্রামবাসী আবদুস সালাম (২৮) নামের একজনকে পিস্তলসহ আটক করে পুলিশে দেয়। আটক সালাম হলেন হায়দার হত্যা মামলার বাদী গফুরের জামাই। উত্তেজিত গ্রামবাসী গফুর ও তার পরিবারের বাড়িঘরে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের থামিয়ে দেয়। বর্ষণ চেচুয়াপাড়া গ্রামের আবদুল হামিদ জানান, গত শুক্রবার রাতে চেচুয়াপাড়া গ্রামের রাস্তায় সালামসহ চারজন মোটরসাইকেল নিয়ে ঘোরাফেরা করছিলেন। এ সময় গ্রামের রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকজন তাদের চ্যালেঞ্জ করলে তারা গুলি করেন। এতে জামাল ও পুটু হাতে-পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। চারজন পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসী ধাওয়া করে সালামকে মোটরসাইকেলসহ আটক করে। এরপর তার মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া ছাড়াও তাকে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ এসে সালামকে আটক করে। এরপর তার দেহ তল্লাশি করে পকেট থেকে একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আসলাম আলী বলেন, গুলিবৃদ্ধ দুইজনকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।