ঢাকা   বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  সদর উপজেলাবাসীর আশার আলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন (জামালপুরের খবর)        বকশিগঞ্জ উপজেলায় স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের সাথে জনতার সংলাপ (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে বিতর্ক প্রতিযোগিতা (জামালপুরের খবর)        খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছেনা সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (জামালপুরের খবর)        বাল্যবিবাহ মুক্ত ময়মনসিংহ বিভাগ ঘোষণা করায় ইসলামপুরে র‌্যালি ও মানববন্ধন (জামালপুরের খবর)        দেওয়ানগঞ্জে জাতীর পিতার জন্ম শত বার্ষিকী উপলক্ষে র‌্যালি, মানববন্ধন, গন স্বাক্ষর ও শপথ গ্রহন (জামালপুরের খবর)        কুষ্ঠ রোগীদের ওষুধ তৈরী ও বিনামূল্যে বিতরণে স্থানীয় কোম্পানীগুলোর প্রতি আহবান প্রধানমন্ত্রীর (জাতীয়)        খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আসল রিপোর্ট বদলে ফেলা হচ্ছে: ফখরুল (রাজনীতি)        অভিযোগ প্রমাণে শাজাহান খানকে ফের ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ইলিয়াস কাঞ্চনের (ঢাকা)        আওয়ামী লীগে কোনও দূষিত রক্ত থাকবে না: ওবায়দুল কাদের (রাজনীতি)      

নিজেদের মামলায় ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধ হয়েছে: কাদের

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:13:19 pm, 2019-09-14 |  দেখা হয়েছে: 5 বার।

আ.জা.ডেক্সঃ ছাত্রদলের কাউন্সিল আটকানোর জন্য সরকারকে দায়ী করার প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নিজেদের মামলয় ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধ হয়েছে। বিএনপির নেতৃত্বের সঙ্কটই এর কারণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের উদ্যোগে গতকাল শনিবার ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ‘জনগণের ক্ষমতায়ন দিবসের’ আলোচনা সভা, কোরআন তেলাওয়াত, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে একথা বলেন তিনি। গতকাল শনিবার ছাত্রদলের কাউন্সিলে কথা থাকলেও সংগঠনটির এক নেতার আবেদনে আদালত স্থগিতাদেশ আসায় তা আটকে যায়। বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, সরকারের চক্রান্তেই ছাত্রদলের কাউন্সিলর বন্ধ করা হয়েছে। সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ কেন ছাত্রদলের সম্মেলন বন্ধ করতে যাবে? ছাত্রদলের নেতাদের মামলার কারণে তাদের কাউন্সিল বন্ধ হল। এখানেও নন্দ ঘোষ শেখ হাসিনার দোষ, এখানেও নন্দ ঘোষ, আওয়ামী লীগের দোষ। নিজেরা নিজেদের বিরুদ্ধে মামলা করে সম্মেলন প- করেছে। এখানে আওয়ামী লীগ বা সরকারে এখানে দোষ কী? আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ছাত্রদলের এই সঙ্কটের জন্য বিএনপির নেতৃত্ব দায়ী। তাদের বিদ্বেষপ্রসূত রাজনীতি, তাদের নেতিবাচক রাজনীতি বিএনপিতে সঙ্কট তৈরি করেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের অর্জনই বাংলাদেশে বিরোধী দলের রাজনীতি করাকে সঙ্কটপূর্ণ করে তুলেছে বলে মন্তব্য করেন কাদের। শেখ হাসিনার উন্নয়ন অর্জন দেখলে এই দেশে অনেকের আঁতে ঘা লাগে, যন্ত্রণা শুরু হয়। শেখ হাসিনার উন্নয়ন অর্জন ও তার অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা বাংলাদেশে বিরোধী রাজনীতির জন্য সঙ্কটের কালো ছায়া নামিয়ে এনেছে। আওয়ামী লীগের কেউ কেউ দুর্নীতিতে যুক্ত বলে স্বীকার করে নিয়েই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থান তুলে ধরেন কাদের। আমাদের দলের সবাই চকবাজারের ইমাম, একথা বলব না। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সরকারের অনেক মন্ত্রী দুদকে হাজিরা দিচ্ছে, আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী জেলে আছে। অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের খানিকটা উষ্মা প্রকাশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা আজকের এমন একটি সুন্দর অনুষ্ঠানকে পত্রিকার শিরোনাম রাজনৈতিক করার জন্য ভিন্ন দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। আপনারা প্রাসঙ্গিক না কেন? আজকের যেই অনুষ্ঠানে এসেছি, তাকে ভিন্ন দিকে নিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আপনারা সাংবাদিকতা করেন, আমিও আপনাদের অগ্রজ। মন্ত্রিত্ব গেলে আমি আবার সাংবাদিকতায় আসব। পঁচাত্তর পরবর্তীতে ছাত্রলীগের সভাপতি ওবায়দুল কাদের ’৮০ এর দশকে শেখ ফজলুল হক মনি প্রতিষ্ঠিত দৈনিক বাংলার বাণীতে কাজ করতেন। একইসঙ্গে আওয়ামী লীগেও সক্রিয় থাকেন তিনি। পরে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদ পেরিয়ে এখন দলটির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন ওবায়দুল কাদের। শেখ হাসিনার ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদের সরকারে যুব, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী কাদের প্রায় একে দশক ধরে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করছেন। অনুষ্ঠানে যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী সংগঠনের মাসব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আগামি ১৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা জেলা এবং ১৭ সেপ্টেম্বর গাজীপুর জেলায় ‘জনগণের ক্ষমতায়ন দিবসের’ অনুষ্ঠান হবে। সারা দেশে জেলা-উপজেলায় কর্মসূচি পালন হবে ২৮ সেপ্টেম্বর। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী স¤্রাটের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক আবুল বারকাত, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এ মোমেন, যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা আজম, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ বাবলু।