ঢাকা   রবিবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  জামিন পাওয়া খালেদা জিয়ার হক : মির্জা ফখরুল (রাজনীতি)        প্রয়োজনীয় কারিগরি ও পেশাগত জ্ঞান অর্জন করুন : সেনাসদস্যদের রাষ্ট্রপতি (জাতীয়)        ভারত থেকে জ্বালানি তেল আমদানিতে আগামী মাসেই পাইপলাইন নির্মাণ শুরু (জাতীয়)        নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অর্ধশত প্রকল্প বাস্তবায়নে লক্ষ্যমাত্রার অর্জন নিয়ে শঙ্কায় বরাদ্দ কমছে (জাতীয়)        নাঈমের হাত ধরে এগিয়ে বাংলাদেশ (খেলাধুলা)        আত্মবিশ্বাসের সাথে ভারতের অপেক্ষায় বাংলাদেশ (খেলাধুলা)        পেলের মূর্তি উন্মোচন ব্রাজিলে (খেলাধুলা)        বড় জয়ে লিগ শুরু করলেন বসুন্ধরা কিংসের মেয়েরা (খেলাধুলা)        ২৯ দেশে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস, মৃত্যু বেড়ে ২৩৬০ (আন্তর্জাতিক)        ৪৬ হাজার বছর আগের হর্নড লার্ক পাখির মৃতদেহ! (আন্তর্জাতিক)      

যে কারনে পাকিস্তান যাবেন না মুশফিক

Logo Missing
প্রকাশিত: 03:12:41 pm, 2020-01-18 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আ.জা. স্পোর্টস:

নিরাপত্তার ঝুঁকিতে নয়, ব্যক্তিগত কারণে পাকিস্তান সফরে যাবেন না মুশফিকুর রহিম। তার বাবা মাহবুব হামিদ ইত্তেফাককে জানান, ভারত সফরেই মুশফিক তাকে জানিয়েছিলেন বিপিএলের পরই তিনি কিছুদিন বিশ্রামে থাকবেন। সে হিসেবেই মুশফিকের চাচাতো বোন জৌসিকা হামিদের বিয়ের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। মূলত ২৪ জানুয়ারি চাচাতো বোনের বিয়েতে উপস্থিত থাকতেই পাকিস্তান সফরে যেতে চান না মুশফিক। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন আগেই জানিয়েছেন, পাকিস্তান সফরে আগ্রহ নেই মুশফিকুর রহিমের । কিন্তু কি কারণে পাকিস্তান সফরে যাবেন না মুশফিক সে ব্যাপারে কোনো কিছু খোলাসা করেননি তিনি। যদিও তখন পর্যন্ত পাকিস্তান সফরের চূড়ান্ত কোনো সূচি জানা যায়নি। তবে এরইমধ্যে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই পাকিস্তান সফরের জন্য তারিখ নির্ধারণ করেছে বিসিবি। ২৪ জানুয়ারি সফরের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। তাই ২২ জানুয়ারি দেশ ত্যাগ করবে টাইগার বাহিনী। পাকিস্তান সফরে যেখানে বাংলাদেশের বিদেশি হেড কোচ ডোমিঙ্গোও যেতে রাজি আছেন। মুশফিক কেন পাকিস্তানে যেতে আগ্রহী নয়, এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তার বাবা মাহবুব হামিদ জানান, বাংলাদেশ যখন ভারত সফর করেছিলও তখনই মুশফিক আমাকে জানিয়েছিলও বিপিএলের পর সে কিছুদিন বিশ্রাম নিতে চায়। সে মোতাবেক তার চাচা মুকছেদ হামিদের মেয়ের বিয়ে ঠিক করা হয় ১০ জানুয়ারি। পরে সেই তারিখ পিছিয়ে করা হয় ১৭ জানুয়ারি। কিন্তু মুশফিকের খুলনা টাইগার্স বিপিএলের ফাইনালে উঠায় বিয়ের তারিখ আরেক ধাপ পিছিয়ে নির্ধারণ করা হয় ২৪ জানুয়ারি। মূলত মুশফিকুর রহিমের সিদ্ধান্ত নিয়েই তার চাচাতো বোনের বিয়ের তারিখ ঠিক করা হয়েছিলও। আর মুশফিকও তার একমাত্র চাচাতো বোনের বিয়েতে উপস্থিত থাকতে চান। এ কারনেই পাকিস্তান সফরে যেতে আগ্রহী নয় মুশফিক।