ঢাকা   বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  বার্সেলোনাকে রক্ষা করলেন গ্রিজম্যান (খেলাধুলা)        ঘরের মাঠে বায়ার্নের কাছে বিধ্বস্ত চেলসি (খেলাধুলা)        অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ (আন্তর্জাতিক)        কোথায় ছিলেন অমিত শাহ, তার পদত্যাগ করা উচিত: সোনিয়া (আন্তর্জাতিক)        পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীকে ডাকা উচিত: কেজরিওয়াল (আন্তর্জাতিক)        দিল্লির মসজিদে আগুন, মিনারে হনুমানের পতাকা (আন্তর্জাতিক)        দিল্লিতে প্যান্ট খুলে সাংবাদিকের ধর্ম যাচাই (আন্তর্জাতিক)        করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭৬৩ (আন্তর্জাতিক)        টানা ২৫ দিন চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে অপূর্ব (বিনোদন)        ওয়েব সিরিজে আমির (বিনোদন)      

চীনের নিষেধাজ্ঞা কারণে উহান থেকে এখনই ফেরানো যাচ্ছে না বাংলাদেশিদের: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:56:04 am, 2020-01-29 |  দেখা হয়েছে: 3 বার।

আ.জা. ডেক্স:

সরকারের প্রস্তুতি থাকলেও চীনের নিষেধাজ্ঞা কারণে করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল উহান থেকে এখনই বাংলাদেশিদের ফেরানো সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি বলেন, আমাদের প্রায় পাঁচশ জন ছাত্রছাত্রী থাকে উহানে। তাদের কেউ যদি স্বদেশে আসতে চায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন, দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য। আমরা সেজন্য প্লেনও রেডি করেছি। তবে আমরা চীনা সরকারকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, তারা বলেছে যে, আগামি দুই সপ্তাহ বা কমপক্ষে ১৪ দিন ওদেরকে আসতে দেবে না। নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্য দেশের আবেদনেও চীন সরকার একই রকম সাড়া দিয়েছে বলে মন্তব্য করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, তাদের ওখানে পুরোপুরি শাট ডাউন, কোথাও যেতে দেয় না। কোথাও নিয়ে গেছে মার্কেটে বাজার করার জন্য, আবার নিয়ে এসেছে। তারা বলেছে, ১৪ দিন তারা কোনো দেশের লোকদের ওই এলাকা ছাড়তে দেবে না।

মধ্য চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে গত বছরের শেষ দিনে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়। নিউমোনিয়ার মতো ল²ণ নিয়ে নতুন এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় সপ্তাহখানেক আগে রাজ্যের সব গণপরিবহন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। কেউ কেউ শহর ছেড়ে গেলেও অনেকে সেখানে কার্যত অবরুদ্ধ। নতুন ধরনের এই করোনাভাইরাসে চীনে এখন পর্যন্ত ১০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৪ হাজার ৫১৫ জন, যা আগের দিনের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ। বছরের এমন এক সময়ে চীনে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে, যখন চন্দ্রবর্ষের উৎসবে প্রিয়জনের সঙ্গে সময় কাটাতে বিপুলসংখ্যক মানুষ এক শহর থেকে অন্য শহরে যাতায়াত করে। ফলে ভাইরাস ছড়ানোর সুযোগও বেড়ে গেছে অনেক। ভাইরাস ছড়ানো ঠেকাতে হুবেই প্রদেশের সঙ্গে অন্যান্য অঞ্চলের বাস চলাচল একপ্রকার বন্ধ করে দিয়েছে চীন সরকার। হুবেই থেকে যাঁরা বেইজিং বা সাংহাইতে যাচ্ছেন, তাদের ১৪ দিনের পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

আটকে পড়াদের মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরা রয়েছেন। তবে উহানে থাকা বাংলাদেশের শিক্ষার্থী ও গবেষকদের জন্য খোলা ‘ওয়েবপেইজের’ মাধ্যমে ২৪৫ জনের সঙ্গে ’সার্বক্ষণিক আলাপ-আলোচনা’ চলছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। চীন সফরের ক্ষেত্রে সবাইকে সতর্কতা অবলম্বন করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, চীন ও আশেপাশের দেশ থেকে আগতদের বিষয়ে বাংলাদেশ সতর্ক রয়েছে। যারাই ওইসব এলাকা থেকে আসবে, তাদেরকে আমরা মনিটরিংয়ের মধ্যে রাখব। তাদের নাম-ঠিকানা রাখব, তারা কোথা থেকে আসছেন, কোথায় যাচ্ছেন। যাতে কোনো কিছু ঘটলে আমরা বলতে পারি, কি কারণে ঘটল। এর আগে গুলশানের লেকশোর হোটেলে ‘তৃতীয় ইউনিভার্সাল পেরিওডিক রিপোর্টস বাস্তবায়ন নিয়ে কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের পরিচালনায় ওই অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বক্তব্য দেন।