ঢাকা   মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  ঠাকুরগাঁওয়ে স্বামীকে হত্যার পর থানায় ফোন করে স্ত্রীর আত্মসমর্পণ (জেলার খবর)        সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে হাজার হাজার কোটি টাকার অনিয়ম (জাতীয়)        উন্নয়ন ও স্বাধীনতার পক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান শিল্প প্রতিমন্ত্রীর (জাতীয়)        ময়মনসিংহের ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ১ (ময়মনসিংহ)         টাঙ্গাইলে চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে হত্যা (জেলার খবর)        প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় চলমান শুদ্ধি অভিযানকে সাধুবাদ জানাই: মেয়র খোকন (ঢাকা)        অপরাধী যেই হোক, আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (জাতীয়)        খালেদার নাইকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি পিছিয়েছে (আইন ও বিচার)        ক্লাবের নামে জুয়ার আসর বসানো যাবে না: মেয়র নাছির (চট্রগ্রাম)        লোক দেখানো অভিযানে অধরাই থেকে যাচ্ছে গডফাদাররা: রিজভী (রাজনীতি)      

সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মাওলানা নূরুল ইসলাম পক্ষে তার সন্তানদের প্রতিবাদ

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:18:52 am, 2018-10-18 |  দেখা হয়েছে: 834 বার।

আমার প্রিয়, সরিষাবাড়ী এবং জামালপুরবাসী, আসসালামুআলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমার বাবা মাওলানা নূরুল ইসলাম সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। আমার নাম রাশেদুল ইসলাম। অনেক ছোট বয়সে জামালপুর তথা বাংলাদেশ থেকে পড়ালেখার জন্য প্রবাসে পাড়ী জমাই। তাই আপনারা অনেকেই আমাকে দেখেননি বা চিনেননা। আমার কাছে আপনারা সবাই দলমত নির্বিশেষে আমার দেশবাসীই আপনজন, ঠিক যেমন আপনারা আমার বাবার কাছে আপনজন। আমার বাবার কখনও একটি দিনও অতিবাহিত হয়না আপনাদের সুখ শান্তির কথা চিন্তা না করে। আপনারা জানেন আমার বাবার বয়স হয়েছে। আমরা পরিবারের সদস্যরা অনেক বছর যাবৎ তার চিকিৎসা করে আসছে। আপনাদের দোয়া, ভালোবাসা এবং আল্লাহর রহমতে উনি ৮১ বছর বয়সেও পূর্বের নেয় দেশ ও জাতির খেদমতের জন্য তৎপর আছেন। আমরা ছেলে মেয়ে এবং পরিবারের সদস্যরা সর্বদাই আমাদের ব্যক্তিগত জীবন যাপনে কোন প্রকার রাজনৈতিক মন্তব্য দেয়া থেকে দূরে থেকে আপনাদের প্রত্যেকের মঙ্গল ও সমৃদ্ধি কামনা করে আসছি। কিন্তু সম্প্রতি আমাদের আতœীয় ও পাড়া প্রতিবেশীদের অনুরোধে এই বিবৃতি দিতে সিন্ধান্ত নেই। বেশ কয়েক বছর যাবৎ বয়সের কারণে মাঝে মাঝে বাবা অসুস্থ হন। এই গত আগষ্ট/জুলাই মাসেও আমার বড়ভাই যিনি আমার বাবার সাথে বাড়ীতে থাকেন এবং দেখাশোনা করেন। তিনি বাবাকে নিয়ে ঢাকা অ্যাপোলো হাসপাতালে তিন সপ্তাহ ছিলেন। এরপর গত সেপ্টেম্বর মাসেও আবার আমরা বাবাকে ঢাকা অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অ্যাপোলো হাসপাতালে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের নিয়ে বোর্ড বসে। সেই বোর্ডের ডাক্তারদের সিন্ধান্তেই বাবাকে নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসা হয় এবং তার ঔষধপত্র সহ সেবার কোন কমতি নেই। আমাদের বিশ^াস আল্লাহর রহমতে ও আপনাদের সকলের দোয়ায় তিনি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই সুস্থ্য হবেন এবং দেশ ও জাতির কল্যানে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারবেন ইনশাআল্লাহ। কিন্তু আমাদের পরিবারের এই ইমোশনাল ও হৃদয়বিদায়ক সময়ে আমরা সবাই অত্যন্ত ব্যথিত ও আশাহত এই কারণে যে, কে বা কারা সামাজিক মাধ্যমে ‘‘ ফেসবুকে’’ প্রচারনা চালায় যে সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মাওলানা নূরুল ইসলাম বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুপথযাত্রী এবং তাকে দেখা-শোনার জন্য তার ছেলে, মেয়ে, আতœীয় স্বজন, অথবা আওয়ামীলীগ এর কোন নেতা কর্মী নেই, চিকিৎসার কোন টাকা পয়সাও নেই। তার চিকিৎসার জন্য কৌশলে জামালপুর, ময়মনসিংহ এবং আরও কয়েক জেলায় ফেসবুকের মাধ্যমে টাকার আবেদন জানানো হয়। এটি মিথ্যা এবং উদ্দেশ্য প্রনোদিত। আমরা বিনীত ভাবে অনুরোধ জানাই যে, দয়া করে আপনারা কাউকে কোন টাকা পয়সা দিবেন না। আমাদের বাবার চিকিৎসার জন্য কারো কাছ থেকে কোন টাকার প্রয়োজন নেই, প্রয়োজন আপনাদের সকলের দোয়া ও ভালোবাসা। হাসপাতাল থেকে নিজ বাড়ীতে আসার পর আমার বড়ভাই, মা, প্রতিবেশী এবং সেবিকার মাধ্যমে সেবা সুশ্র“ষায় নিয়োজিত আছেন। আমরা কারো কাছে টাকার জন্য আবেদন করি নাই, এবং আমাদের চিকিৎসার টাকার কোন অভাবও নেই ইনশাআল্লাহ। আমার বাবার সার্বক্ষনিক দেখাশোনা, খোজ-খবর রাখার জন্য আমার পরিবারের সদস্যগণ কৃতজ্ঞতার সাথে ধন্যবাদ জানাই জেলা/উপজেলা আওয়ামীলীগের সর্বস্তরের নেতা কর্মী, আতœীয়স্বজন, সুভাকাঙ্খী এবং সর্বপরি সরিষাবাড়ী উপজেলার আপামর জনগণকে। আমাদের বাড়ীর দরজা আপনাদের সবার জন্য সর্বদাই খোলা ছিলো এবং আছে। সর্বপরি আমরা আপনাদের কাছে আমাদের বাবার আরোগ্য লাভের জন্য এবং তিনি যেন তার জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত আপনাদের সেবা করতে পারে এই দোয়াই কামনা করছি। আমরা সব সময়ই জানি আমার বাবা আপনাদের কাছ থেকে অঢেল ভালোবাসা এবং শ্রদ্ধা পেয়ে আসছেন, ঠিক যেমনটি উনি আপনাদেরকে ভালোবাসেন। আপনাদের সকলের মঙ্গল ও সমৃদ্ধি কামনা করছি। আসসালামুআলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। - রাশেদুল ইসলাম

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!