ঢাকা   রবিবার ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ২২ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন খালেদা জিয়া

Logo Missing
প্রকাশিত: 02:20:41 am, 2020-03-26 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আ.জা. ডেক্স:

ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শে সদ্য কারামুক্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। গতকাল বুধবার বিকেলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একথা জানান। পরে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। খালেদা জিয়া বুধবার বিকেলে মুক্তি পেয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) থেকে গুলশানের বাসায় যান বিকেল সোয়া ৫টায়। এর কিছুক্ষণ পর খালেদা জিয়ার কয়েকজন চিকিৎসক ও স্থায়ী কমিটির সদস্য তার বাসায় যান। সেখানে বসে তারা সিদ্ধান্ত নেন খালেদা জিয়া আগামী ১৪ দিন গুলশানের বাসায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন।

এদিকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য পাঁচ থেকে ছয় সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) মহাসচিব অধ্যাপক ডা. হারুন-আল-রশিদ এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। আমরা বলবো উনাকে যেন বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ডা. হারুন-আল-রশিদ জানান, এখনও কোনো মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়নি। তবে পাঁচ থেকে ছয় সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করার সিদ্ধান্ত রয়েছে। এর আগে বিকেল ৪টার পর কারান্তরীণ খালেদাকে মুক্তি দেয়া হলে তিনি ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে প্রাঙ্গণে রাখা গাড়িতে ওঠেন। সেখান থেকে খালেদাকে বহনকারী গাড়ি ফিরোজার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। খালেদার সঙ্গে তার গৃহকর্মী ফাতেমাও বের হন। তবে ফাতেমা অন্য গাড়িতে করে বাসায় ফেরেন।

গত মঙ্গলবার সরকারের পক্ষ থেকে খালেদার মুক্তির সিদ্ধান্ত জানানো হলে তার বাসভবন ‘ফিরোজা’ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়। পরে বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটে গুলশানের ওই বাসায় পৌঁছান খালেদা জিয়া। গাড়ি থেকে নেমে আবারও হুইলচেয়ারে তাকে শয়নকক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেল ৪টা থেকেই ফিরোজার সামনে ভীড় জমতে থাকে নেতাকর্মীরা। শাহবাগ থেকে গুলশান-২ ফিরোজা পর্যন্ত যাওয়ার সময় রাস্তার দুই পাশেই কিছুক্ষণ পরপর নেতাকর্মীরা জড়ো হয়ে খালেদা জিয়া, খালেদা জিয়া স্লোগান দিতে দেখা যায়। এ সময় গাড়ি থেকে হাত নাড়িয়ে সাড়া দেন খালেদা জিয়াও। এর আগে বেলা সাড়ে ৩টা থেকে বিএসএমএমইউ হাসপাতাল প্রাঙ্গণে খালেদা জিয়ার জন্য অপেক্ষা করেন ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার এবং বোন বেগম সেলিনা ইসলাম ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের নেতাকর্মীরা।

এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, আল্লাহর কাছে হাজার শুকরিয়া যে উনাকে (খালেদ জিয়া) আমরা বাসায় নিয়ে আসতে পেরেছি। আমরা বিশ্বাস করি তিনি এই ঘরোয়া পরিবেশে মানসিকভাবে অনেকটা সুস্থ হয়ে উঠবেন। ইনশাল্লাহ তাকে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে তোলা হবে। আমরা তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা ম্যাডামের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। আজকে তার নিজস্ব চিকিৎসকরা বসবেন এবং অন্যান্য বিষয়গুলো পরামর্শ করে দেখা হবে।