ঢাকা   মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  জামালপুরে র‌্যাবের অভিযানে এক ভুয়া চিকিৎসক গ্রেফতার (জামালপুরের খবর)        মেলান্দহ উপজেলা হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে শিশু নির্যাতন কারী উজ্জলের শাস্তির দাবীতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ (জামালপুরের খবর)        রাজিবপুরে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ এর উপর আলোচনা সভা (জেলার খবর)        মেলান্দহে ভাতার বই বিতরণ অনুষ্ঠান (জামালপুরের খবর)        সরিষাবাড়ি যুব উন্নয়ন অফিসের উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপি যুব প্রশিক্ষণ শুরু (জামালপুরের খবর)        রৌমারীতে নৌকাবাইচ খেলা অনুষ্ঠিত (জেলার খবর)        ঠাকুরগাঁওয়ে স্বামীকে হত্যার পর থানায় ফোন করে স্ত্রীর আত্মসমর্পণ (জেলার খবর)        সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে হাজার হাজার কোটি টাকার অনিয়ম (জাতীয়)        উন্নয়ন ও স্বাধীনতার পক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান শিল্প প্রতিমন্ত্রীর (জাতীয়)      

মার্চে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে ইসি

Logo Missing
প্রকাশিত: 06:45:47 pm, 2019-01-05 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আজ ডেক্সঃ চলতি বছরের মার্স মাসেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে এগুচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মতোই এবারেও ধাপে ধাপে নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর বিগত সময় উপজেলা পরিষদে নির্দলীয় ভোট হলেও এবার দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ফলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও নৌকা-ধানের শীষসহ অন্যান্য দলীয় প্রতীকের লড়াই হবে। তবে সংসদ নির্বাচন শেষ করেই উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠান ইসির জন্য আরেক চ্যালেঞ্জ হবে বলে নির্বাচন বিশ্লেষকরা মনে করছেন। ইসি সচিবালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, দেশে উপজেলা রয়েছে প্রায় ৪৯২টি। তার মধ্যে সম্প্রতি কয়েকটির নির্বাচন হয়েছে। তবে মার্চের মধ্যে যেগুলো নির্বাচন উপযোগী সেগুলোতে প্রথম ধাপে ভোট হবে। সেজন্য জানুয়ারির শেষে অথবা ফেব্রুয়ারির শুরুতে তফসিল ঘোষণা হতে পারে। এবারের উপজেলা নির্বাচন কমিশন বড় আকারে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের পরিকল্পনা নিচ্ছে। বিগত ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ৪৬০টি উপজেলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হয়। ১৯৯০ সালে দ্বিতীয়বারের মতো ও ২০০৯ সালে তৃতীয়বারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই বছর ৪৭৫টি উপজেলায় নির্বাচন হয়। উপজেলা পরিষদ আইন অনুযায়ী, পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে নতুন নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে হবে। সূত্র জানায়, চলতি জানুয়ারি মাসের শেষে অথবা ফেব্রুয়ারির শুরুতেই উপজেলা নির্বাচনের তফসিল হলে মার্চের ৩ অথবা ৭ তারিখে প্রথম ধাপের ভোট হবে। আর ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে দ্বিতীয় ধাপের তফসিল দিয়ে মার্চের মাঝামাঝিতে ভোট করার চিন্তা করা হচ্ছে। তবে একই দিনে সারা দেশের ভোট করার প্রস্তাবও বিবেচনায় রাখছে ইসি সচিবালয়। সেক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারির শুরুতে তফসিল দিয়ে মার্চেই ভোট শেষ করার পরিকল্পনা নেয়া হতে পারে। তবে সরকারের সবুজ সংকেতের ওপর সবকিছু নির্ভর করছে। সূত্র আরো জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির সঙ্গে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচনী সামগ্রী কেনাকাটা করা হয়েছে। কারণ মার্চে নির্বাচন করতে হলে জানুয়ারি কিংবা ফেব্রুয়ারির শুরুর দিকেই তফসিল ঘোষণা করতে হবে। বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই সপ্তাহ পরই ১৯ জানুয়ারি উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল। আর ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত মোট ৬ ধাপে ওই নির্বাচনের ভোট হয়। সে সময় ৬ ধাপে ৪৮৭টিরও বেশি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেটি ছিল দেশের চতুর্থ উপজেলা নির্বাচন। তবে গতবার নির্দলীয় ভোট হলেও এবার দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের এ নির্বাচন হবে। যেসব উপজেলা পরিষদের মেয়াদ জুলাই মাসে শেষ হচ্ছে ওসব উপজেলার নির্বাচন ৩১ মার্চের মধ্যে শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে। জুলাইয়ের পরে যেসব উপজেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে সেগুলোর নির্বাচন পরে সুবিধাজনক সময়ে ঘোষণা করা হবে। এদিকে সংসদ নির্বাচন শেষ করেই উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে নির্বাচন কমিশনে। ভোটার তালিকা চূড়ান্ত রয়েছে। সংসদের ভোটের সঙ্গে নির্বাচনী সামগ্রী কেনাকাটা করেছে ইসি। উপজেলা নির্বাচনের মালামালের মধ্যে রয়েছে- ব্যালট পেপারের কাগজ, স্ট্যাম্প প্যাড, অফিশিয়াল সিল, মার্কিং সিল, ব্রাশ সিল, লাল গালা, আম কাঠের প্যাকিং বাক্স, অমোচনীয় কালি, বিভিন্ন ফরম, প্যাকেট। সেজন্য প্রায় ৩৫ কোটি টাকার কাগজ কেনা হয়েছে। অন্যদিকে এ বিষয়ে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, উপজেলা নির্বাচন তো নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই করতে হবে। যেহেতু ফেব্রুয়ারি মাসে এসএসসি পরীক্ষা আর এপ্রিল মাসে এইচএসসি পরীক্ষা। তাই উপজেলা নির্বাচন করার জন্য মার্চ মাসটাকে ধার্য করা হয়েছে। তবে কমিশন যেভাবে সিদ্ধান্ত দেবে সেভাবেই এগিয়ে যাওয়া হবে। আইন অনুযায়ী কোনো উপজেলা পরিষদের মেয়াদ পূর্তির আগের ৬ মাসের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!