ঢাকা   ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  ইয়েমেন যুদ্ধের মধ্যে ১৮০ কোটি ডলারের মার্কিন অস্ত্র কিনল আবু ধাবি (আন্তর্জাতিক)        নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিয়েবাড়িতে ট্রাক, নিহত ১৩ (আন্তর্জাতিক)        কাশ্মিরে অস্ত্র হাতে তুলে নিলেই গুলির নির্দেশ (আন্তর্জাতিক)        সৌদি যুবরাজের নির্দেশে মুক্ত হচ্ছেন ২১০০ পাকিস্তানি বন্দি (আন্তর্জাতিক)        আমাদের সকল প্রচেষ্টা ও প্রয়াস সার্থক হয়েছে: সিইসি (জাতীয়)        সততাই আমাদের সরকারের মূল চালিকাশক্তি: প্রযুক্তিমন্ত্রী (রাজনীতি)         শাজাহান খানের নেতৃত্বে সড়কে শৃঙ্খলার কমিটি হাস্যকর: রিজভী (রাজনীতি)        উপজেলা নির্বাচন জৌলুস হারাতে বসেছে: ইসি মাহবুব (জাতীয়)        সংবাদমাধ্যমের আরো দায়িত্বশীল হওয়া প্রয়োজন: তথ্যমন্ত্রী (জাতীয়)        শহীদ মিনারে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে: আছাদুজ্জামান (জাতীয়)      

গ্রহণযোগ্যরাই উপজেলায় মনোনয়ন পাবেন: ওবায়দুল কাদের

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:51:38 pm, 2019-02-05 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আজ ডেক্সঃ উপজেলা নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে সংগঠনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সতর্কতা পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘জণগণের কাছে গ্রহণযোগ্য, অধিকতর গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি যাতে মনোনয়ন পান, সে বিষয়ে আমাদের সব ধরনের মেকানিজম আছে। এ বিবেচনাতেই আমরা মনোনয়ন দেবো।’ গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমাদানের দ্বিতীয় দিনে তিনি একথা বলেন। তিনি আরও বলেন, ‘অনিয়মের অভিযোগ আসতে পারে। অনেক সময় একাধিক প্রার্থী কারো নাম না এলে তারা অসন্তোষও থাকতে পারে, তবে সবকিছু যাচাই-বাছাই করে দেখতে হবে। এখানে তো আমাদের ইন্টারনাল মেকানিজম আছে, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখতে হবে।’ সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘মনোনয়ন চাওয়া অপরাধ না, দল করে দলের জন্য ত্যাগ করবে। রাস্তায় রাস্তায় পুলিশের মার খেয়েছে। নির্যাতন সহ্য করেছে অনেকেই। আওয়ামী লীগ কতদিন ক্ষমতায় তার আগে তো অত্যাচার নির্যাতনের মধ্য দিয়ে দলের কর্মী থেকে নেতা হয়েছে। কাজেই আশা-আকাঙ্খা সবারই থাকতে পারে। কিন্তু মনোনয়ন তো আমরা চেয়ারম্যান একজনকে দেবো এবং ভাইস চেয়ারম্যানে দুইজন দেবো। একজন মহিলা একজন পুরুষ, এর বাইরে তো আর মনোনয়ন দেবো না।’ এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে ফরম সংগ্রহের বিষয়টি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘ফরম কেনাটা আমরা ওপেন করে দিয়েছি। ফরম কেনা তো নমিনেশন পাওয়া না। তাই সেটা আমরা ওপেন করে দিয়েছি।’ আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিএনপি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আসবে না, এটা অফিসিয়ালি বলেছে। কাউন্সিলর পদে তাদের অনেকে, তাদের গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতারা কিন্তু প্রার্থীতায় আছেন। তারা কিন্তু অনেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। কাজেই তারা একেবারে মাঠে নেই এই কথা বলার কারণ নাই। উপজেলা নির্বাচনেও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তারা মনোনয়নপত্র তুলতে পারে।’