Monday, March 4, 2024
Homeঅর্থনীতিঅটোমোবাইল-এভিয়েশনে বিনিয়োগের সুযোগ দেখছে স্লোভাকিয়া

অটোমোবাইল-এভিয়েশনে বিনিয়োগের সুযোগ দেখছে স্লোভাকিয়া

বাংলাদেশে অটোমোবাইল, এভিয়েশন, শিপিং, রেলওয়ে, লজিস্টিকস, হালকা প্রকৌশলসহ রাসায়নিক (ইথানল) খাতে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের সুযোগ দেখছে মধ্য ইউরোপের দেশ স্লোভাকিয়া।

শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন দ্য ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মাহবুবুল আলমের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে এসব খাতের সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন ভারতের নয়া দিল্লীতে নিযুক্ত স্লোভাকিয়ার রাষ্ট্রদূত রবার্ট ম্যাক্সিয়ান।

মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) এফবিসিসিআইয়ের  পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।  

এতে বলা হয়, রাজধানীর গুলশানে এফবিসিসিআইয়ের কার্যালয়ে এই সৌজন্য সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। সাক্ষাতে বাংলাদেশের বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ এবং ব্যাপক অবকাঠামোগত উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম।

তিনি জানান, বাংলাদেশ এখন দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বিজনেস হাব হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। গভীর সমুদ্রবন্দর, একশত বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, হাই-টেক পার্ক, ট্যুরিজম পার্ক, নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট ও এলএনজি টার্মিনালসহ বেশকিছু উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। পাশাপাশি ব্যবসা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগকে উৎসাহিত করতে সরকারের আন্তরিকতা এবং নীতিসহায়তা দেশে ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করেছে।

এ সময় স্লোভাকিয়ার কোম্পানিগুলোকে বাংলাদেশে সম্ভাবনাময় খাতগুলোতে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগকে (এফডিআই) আকর্ষণে সরকার ইতোমধ্যে কর সুবিধা ও ওয়ানস্টপ সার্ভিসসহ বেশকিছু নীতি সহায়তা দিচ্ছে। এছাড়া, দেশি কোম্পানির পাশাপাশি বিদেশি কোম্পানিগুলোর বিনিয়োগকে সুরক্ষিত রাখতে দেশে স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখতে সরকার দৃঢ় প্রত্যয়ী। পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বহুগুণ বৃদ্ধি করা সম্ভব বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।

সাক্ষাতে বাংলাদেশের অর্থনীতির শক্তিশালী ভিত্তি এবং জিডিপির ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধির প্রশংসা করেন স্লোভাকিয়ার রাষ্ট্রদূত রবার্ট ম্যাক্সিয়ান। তিনি জানান, বাংলাদেশ এবং স্লোভাকিয়ার মধ্যে বাণিজ্যের আকার প্রায় ৫০০ মিলিয়ন ইউরোর। এর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে স্লোভাকিয়ায় পণ্য রপ্তানি পরিমাণ প্রায় ৪৯০ মিলিয়ন ইউরোর, যার পুরোটাই কেবল তৈরি পোশাক খাতের দখলে। এর বিপরীতে স্লোভাকিয়া থেকে প্রায় ১০ মিলিয়ন ইউরোর রাবার আমদানি হয় বাংলাদেশে। রপ্তানি বহুমুখীকরণের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য আরও বৃদ্ধির বড় সম্ভাবনা দেখছেন নয়া দিল্লীতে নিযুক্ত স্লোভাকিয়ার রাষ্ট্রদূত।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আমিন হেলালী, সহ-সভাপতি শমী কায়সার, রাশেদুল হোসেন চৌধুরী (রনি), মো. মুনির হোসেন, অন্যান্য পরিচালক ও ব্যবসায়ী নেতারা।

Most Popular

Recent Comments