Thursday, July 29, 2021
Home খেলাধুলা আমিও নার্ভাস হই: ডি ভিলিয়ার্স

আমিও নার্ভাস হই: ডি ভিলিয়ার্স

আ.জা. স্পোর্টস:

২২ গজে যেদিন ছন্দে থাকেন এবি ডি ভিলিয়ার্স, তাকে মনে হয় অপ্রতিরোধ্য। চাপের লেশমাত্র দেখা যায় না তার ব্যাটিংয়ে। অথচ তিনিও নাকি চাপে পড়েন! নিজের দিনে তিনি পাত্তা দেন না দুনিয়ার কোনো বোলারকেই। কিন্তু নিজেই বলছেন, বোলারদের তিনি দারুণ সম্মান করেন। আইপিএলে শনিবার ২২ বলে ৫৫ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংসে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে জিতিয়েছেন ডি ভিলিয়ার্স। রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ম্যাচটিতে শেষ ২ ওভারে বেঙ্গালুরুর প্রয়োজন ছিল ৩৫ রান। ১৯তম ওভারে জয়দেব উনাদকাটের বলে টানা তিনটি ছক্কা মারেন ডি ভিলিয়ার্স। শেষ ওভারে ৩ বলে যখন প্রয়োজন ৫ রান, তখন জফ্রা আর্চারকে ছক্কা মেরে সমাপ্তি টানেন যাবতীয় উত্তেজনার। এতটা চাপের সময়ও তাকে দেখা গেছে অবলিলায় ব্যাট চালাতে, নির্লিপ্ত হয়ে বোলারদের গুঁড়িয়ে দিতে। এবারের আইপিএলে এর আগে ৩৩ বলে ৭৩, ২৪ বলে ৫৫, ৩০ বলে ৫১ রানের ইনিংস তিনি খেলেছেন। তার ব্যাটিংয়ে ভয়ডরের চিহ্ন চোখে পড়ে না কখনোই। শনিবারের ম্যাচ শেষে এটি নিয়েই জানতে চাইলেন ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে। হাসতে হাসতে ডি ভিলিয়ার্স বললেন, “প্রচন্ড নার্ভাস ও অস্থির হই আমি। আরও অনেক কিছু হয়ে যায় ভেতরে।” ভোগলের তখন পাল্টা জিজ্ঞাসা, “আপনি তো সবসময়ই এটা বলেন, কিন্তু কখনোই ব্যাটিংয়ে সেটির প্রতিফলন পড়ে না!” এবার ডি ভিলিয়ার্সের উত্তর, “আমি চেষ্টা করি লুকাতে (হাসি)। সত্যি বলতে, আমিও ভীষণ চাপ অনুভব করি। যে কোনো ক্রিকেটারই এসব মুহূর্তে চাপে থাকে। নিজের পারফরম্যান্সে আমি গর্ব খুঁজে নেই। দলের জয়ে বড় অবদান রাখতে চাই। ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকপক্ষকে দেখাতে চাই, আমি এখানে আছি উপযুক্ত কারণেই। তাদের আস্থার প্রতিদান দিতে চাই।” “ এছাড়াও আমার পরিবার, বন্ধুরা, আমার সব ভক্ত এবং অবশ্যই আমার নিজের জন্য, প্রতিটি ম্যাচেই চাই ভালো করতে। গত ম্যাচে ভালো করিনি, আজ করতে পেরে ভালো লাগছে।”

এবারের টুর্নামেন্টে এখনও পর্যন্ত ২৮৫ রান করেছেন ডি ভিলিয়ার্স, তার ব্যাটিং গড় ৫৭, স্ট্রাইক রেট ১৯০। এখনও পর্যন্ত একশ রান করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এই স্ট্রাইক রেটের ধারেকাছে নেই কেউ। ৯ ইনিংসে ছক্কা মেরেছেন ১৯টি, চার ২১টি। ম্যাচ সেরা হয়েছেন তিন বার। তাকে ব্যাট হাতে ক্রিজে দেখলেই অনেক বোলারের বুকে কাঁপন ধরার কথা। ভয় থেকেও বাজে বল করে বসেন অনেকে। এটি কি তার পক্ষে যায়? ডি ভিলিয়ার্স বললেন, বোলারদের তিনি যথেষ্ট সমীহ করেন। “আমি কখনও সেভাবে ভাবি না। ¯্রফে নিজেকে মেলে ধরতে চাই, উপস্থিতি জানান দিতে চাই। নিজের পরিকল্পনায় অটল থাকি। এটা বুঝিয়ে দেই যে, আমাকে আউট করতে না পারলে আমি হুমকি হয়ে উঠব।” “এটা আসলে ইঁদুর-বিড়াল খেলার মতো। বোলারদের অবশ্যই সমীহ করি আমি। ভালো বল করলে তারা এগিয়ে থাকে। তখন আমি চেষ্টা করি সম্ভব যে কোনো উপায়ে সেটি বদলে দিতে। সৌভাগ্যক্রমে আজকে যেমন পেরেছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

জামালপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান : জরিমানা আদায়

এম.এ.রফিক: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউনের নির্দেশনা না মানায় জামালপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গতকাল মঙ্গলবার ভ্রাম্যমান আদালতের...

জামালপুর পৌর মেয়রের নির্দেশে ভেঙে দেওয়া হলো নিম্নমানের প্যালাসাইডিং

নিজস্ব সংবাদদাতা: জামালপুর পৌরসভার একটি প্যালাসাইডিং এর নির্মাণ কাজ নিম্নমানের হওয়ায় পৌর মেয়রের নির্দেশে তা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে পৌর...

জামালপুরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের ২৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিনিধি: নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জামালপুরে পালিত হয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।এ উপলক্ষে মঙ্গলবার...

বকশীগঞ্জে লকডাউনের পঞ্চম দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১৪ মামলা

বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি: বকশীগঞ্জে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিনে বিধিনিষেধ মানাতে তৎপর উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার সরকারি আদেশ অমান্য করে...

Recent Comments