Monday, February 26, 2024
Homeআন্তর্জাতিকইসরায়েলে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

ইসরায়েলে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীনগোষ্ঠী হামাসের সাথে যুদ্ধে ফিলিস্তিনের সমর্থনে ইসরায়েলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান-সমর্থিত লেবাননের সশস্ত্রগোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় কিব্বুৎজ শহরের মানারা সীমান্তে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) অবস্থান লক্ষ্য করে এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে।

জেরুজালেম পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার গভীর রাতে মানার সীমান্তে ইসরায়েলি সামরিক চৌকি লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে হিজবুল্লাহ। আইডিএফ বলেছে, ভূপৃষ্ঠ থেকে আকাশে ছোড়া এই ক্ষেপণাস্ত্রে ইসরায়েলের সামরিক চৌকির কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের উৎস লক্ষ্য করে লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে পাল্টা গোলাবর্ষণ করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এর আগে, ইসরায়েলের ছোড়া একটি ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি জানায় হিজবুল্লাহ।

এ ছাড়াও লেবাননের দক্ষিণাঞ্চল থেকে ইসরায়েলের মাউন্ট ডভ ওও হারমন এলাকায় কয়েকটি রকেট নিক্ষেপ করে ইরান-সমর্থিত সশস্ত্র এই গোষ্ঠী। তবে সব রকেটই খোলা জায়গায় পড়েছে। ইসরায়েলের আর্টিলারি বাহিনী লেবাননের ভূখণ্ডে হিজবুল্লাহর অবস্থানে পাল্টা গোলাবর্ষণ করেছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ইসরায়েলি বাহিনীর সাথে সীমান্তে সংঘর্ষের সময় হিজবুল্লাহর আরও এক সদস্যের প্রাণহানি ঘটেছে। তবে কী ধরনের পরিস্থিতিতে ওই সদস্যের প্রাণহানি ঘটেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানায়নি হিজবুল্লাহ।

গাজা উপত্যকায় হামাসের সাথে ইসরায়েলের চলমান যুদ্ধের মাঝে ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। গত ৭ অক্টোবর হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধের শুরু থেকে ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে রকেট, ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলা চালিয়ে আসছে লেবাননের এই সশস্ত্রগোষ্ঠী। হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ শুরুর পর সীমান্ত সংঘাতে এখন পর্যন্ত ৪৯ জন যোদ্ধা নিহত ও আরও ৪৩ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে হিজবুল্লাহ। 

ইসরায়েল-লেবাননের ২০০৬ সালের রক্তক্ষয়ী এক যুদ্ধের পর এবারই এ দুই প্রতিবেশীর মাঝে তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ওই বছর ইসরায়েলের সাথে লেবাননের যুদ্ধে এক হাজারের বেশি লেবানিজ মারা যান।

ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলের প্রতিবেশী লেবানন থেকে হিজবুল্লাহ সতর্ক করে দিয়ে বলছে, গাজায় অবিলম্বে ইসরায়েলি আগ্রাসন বন্ধ এবং স্থল হামলার পরিকল্পনা বাতিল না করা হলে ইসরায়েলে নজিরবিহীন আক্রমণ চালাবে তারা। এমনকি ইসরায়েলের দিকে হিজবুল্লাহর দেড় লাখ রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র তাক করা আছে বলে সতর্ক করে দিয়েছে বিশ্বের শক্তিশালী সশস্ত্র এই গোষ্ঠীটি।

Most Popular

Recent Comments