Friday, August 6, 2021
Home জামালপুর ইসলামপুরে গৃহবধূ শিপার মৃত্যুর ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা

ইসলামপুরে গৃহবধূ শিপার মৃত্যুর ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা

মোহাম্মদ আলী:

শারিরীক নির্যাতন করে হত্যার পর গৃহবধূ শিপার মৃত্যুর ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা করছে শিপার স্বামী ও শশুর শাশুড়ী। তারা স্থানীয় দালালদের দিয়ে থানায় ও হাসপাতালে তদবির করাচ্ছেন। তাদের এ অপচেষ্টা সফল হলে ধাপাচাপা পড়তে পারে মৃত্যুর আসল কারণ, পার পেয়ে যেতে পারে অপরাধীরা। শনিবার, দৈনিক আজকের জামালপুর পত্রিকার সম্পাদক বরারব সংবাদ প্রকাশ সংক্রান্ত আবেদনে এমন আশঙ্কা ও সংশয় প্রকাশ করেছেন শিপার দরিদ্র দিন মজুর বাবা আঃ জলিল। তিনি জানান, ৭/৮ বছর আগে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তার মাদ্রাসায় পড়–য়া মেয়ে শিপা আক্তারকে (১৬) বিয়ে করে পাশের গ্রাম মোঃপুরের কৃষক মোক্তার হোসেনের ছেলে আলমগীর (২০)। মেয়ের সুখের দিকে তাকিয়ে সেবিয়ে মেনে নেন তিনি। কিন্তু, বিধি বাম। বিয়ের পর থেকেই নানা দাবি দাওয়ার তুলে তার মেয়েকে শারিরীক নির্যাতন করতে শুরু করে তার স্বামী ও শশুড় শাশুড়ী। এরই মধ্যে দিয়ে শিপার কুলজুড়ে আসে এক পুত্র সন্তান। ২/৩ বছর আগে জামাই চাকুরীর কথা বলে টাকা চাইলে মেয়েকে নির্যাতনের ভয়ে তিনি আবাদী জমি বিক্রি করে ২লাখ টাকা দেন। কিন্তু, চাকুরীর জায়গায় চাকুরী থেকেছে টাকা হয়ে যায় হজম। এরপরেও কয়েকমাস আগে আবারও যৌতুকের দাবি তুলে নির্যাতনের পর তার মেয়েকে ২ তালাক দেয় লোভী স্বামী আলমগীর। একমাত্র মেয়ের সংসার টিকিয়ে রাখতে গ্রামের মাথা মুরুব্বীদের ধরে সমযোতা করেন আঃ জলিল। এতো কিছুর পরও শেষ রক্ষা হয়নি মেয়ের। স্বামী শাশুড়ী ও শশুরের নির্যাতনের শিকার হয়ে মেয়েকে লাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে বাবার বাড়ি। এখন চলছে মৃত্যুর আসল কারণ ধামাচাপার দেওয়ার অপচেষ্ট। অপরাধীদের রক্ষা করতে তাদের দালালরা পায়তারা করছে থানায় ও হাসপাতালের চত্বরে।

গৃহবধূ শিপার বাবার এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার ঘটনাস্থলে মোঃপুর আলমগীর বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। বাড়ি প্রহড়া দিচ্ছে গোয়ালের ইউনিয়নের চৌকিদার সুনিলসহ আরও কয়েকজন। সে জানায় ঘটনার দিন সোমবার রাত থেকেই পুরো বাড়ির লোকজন পালিয়েছে। সেদিন থেকে তাদের ফেলে যাওয়া বাড়ি ঘর ও জিনিসপত্র প্রহড়া দিচ্ছেন তারা। শিপার মা বেদেনা বেগম বলেন, ঘটনার দিন বিকেলেও মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে আমার মেয়ের সাথে। সেদিন সে ছিল রোজা। তার স্বামী ও শশুর শাশুড়ী তাকে গালিগালাজ করেছে এবং তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে বলে জানিয়েছে সে আমাকে। আমি তাকে শান্তনা দিয়েছি। এর কয়েক ঘন্টা পর আমি খবর পাই আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে। খবর শুনে আমরা ছুটে যাই মেয়ের শশুড় বাড়ি। গিয়ে দেখি মাটিতে আমার মেয়ের লাশ পড়া। তার গলা গামছা দিয়ে বাধা। এরই মধ্যে চলে আসে পুলিশ। পুলিশ এসে আমার সামনেই মেয়ের সুরৎহাল রিপোর্ট করেন। তখন আমি দেখতে পাই আমার মেয়ে শিপার গলায় ও দুই হাতের কব্জিতে জখম। আমার বিশ্বাস আমার মেয়েকে শারিরীক নির্যাতন করে হত্যার পর অপরাধীরা আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চেয়েছে। এব্যাপারে ইসলামপুর থানার ওসি তদন্ত, কবির হোসেন জানান, গৃহবধূ শিপার মৃত্যুতে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরই এ বিষয়ে পরবর্তি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

টিকা না নিয়ে বের হলে শাস্তির সিদ্ধান্ত হয়নি: তথ্যমন্ত্রী

আ.জা. ডেক্স: করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আগামী ১১ আগস্ট থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সী কোনো নাগরিক টিকা নেয়া ছাড়া বাইরে...

টিকা ছাড়া চলাফেরায় শাস্তির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

আ.জা. ডেক্স: আগামী ১১ আগস্ট থেকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন নেয়া ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বের কোনো ব্যক্তি বাইরে চলাফেরার...

‘জিনের বাদশা’ সেজে ৬০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া চক্রের ৩ সদস্য আটক

আ.জা. ডেক্স: চট্টগ্রামের এক নারীর স্বামী বিদেশ থাকেন। তার দুরারোগ্য ব্যাধি ছিল। এই রোগ থেকে মুক্তির আশায় টেলিভিশনের...

আইটি পণ্য সরবরাহ বিধিনিষেধের আওতার বাইরে রাখার নির্দেশ

আ.জা. ডেক্স: তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে জরুরি সেবা খাতের আওতায় আনা হয়েছে জানিয়ে চলমান বিধিনিষেধে কম্পিউটার হার্ডওয়্যারসহ আইটি পণ্য সরবরাহে...

Recent Comments