Friday, January 27, 2023
Homeজাতীয়ঈমান-আখলাকে মুসলিম ঐক্য-ভ্রাতৃত্ব গড়ার আর্জি মোনাজাতে

ঈমান-আখলাকে মুসলিম ঐক্য-ভ্রাতৃত্ব গড়ার আর্জি মোনাজাতে

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগতীরে লাখো মানুষের অংশগ্রহণে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। বিশ্বশান্তি, কল্যাণ কামনা, মুসলমানদের ঈমানের মূল্য বোঝার, ঈমান হেফাজত, পারস্পারিক ভ্রাতৃত্ব, উন্নত আখলাক গড়ার জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

মোনাজাতে আল্লাহর কাছে নিজেদের রাগকে বশ, নাফরমানিকে ঘৃণা, ভালোবাসা ছড়িয়ে বিশ্ব মুসলিম ভাতৃত্ব গড়ার বিশেষ আর্জি জানানো হয়।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে তুরাগতীরে প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। প্রায় ২৫ মিনিটব্যাপী আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলিগ জামাতের কাকরাইলের শুরা সদস্য হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জুবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে সকালে ফজরের পরপর হেদায়েতি বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আবদুর রহমান।

dhakapost

আখেরি মোনাজাতে আল্লাহর কাছে গুনাহ মাফের জন্য তওবা, সারা দুনিয়ার মুসলমান নর-নারীর গুনাহ মাফ, ঈমানের হাকিকত, ঈমানের জামাত, ঈমানি ভয়, ঈমানি মৃত্যু, ঈমানি ভ্রাতৃত্ব মজবুত করা, ঈমানি রিজিক, ঈমানের সঙ্গে কবরে ও আখেরাতে পুনরুত্থিত হওয়ার তাওফিক চাওয়া হয়।

মোনাজাতে হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জুবায়ের বলেন, ঈমানের চেয়ে বড় কিছু নেই। ঈমান হারা না হয়ে ঈমানের সঙ্গে চলার তাওফিক কামনা করেন। ঈমানের দাবি যেন পালন করতে পারে মুসলমানরা সেজন্য আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ কামনা করা হয়।

দুনিয়ার সমস্ত কাজকর্ম ঈমানের সঙ্গে করার, রাগকে খতম, নাফরমানিকে শেষ করে দিয়ে ঈমানের প্রতি আগ্রহ পয়দা করার বিশেষ আর্জি করা হয়। নামাজ প্রতিষ্ঠা, নামাজের নিয়ম-কানুন, নামাজের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠার তাওফিক চাওয়া হয়।

বিশ্ব মুসলমানদের জানমালের হেফাজত, মুসলমানদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করা, ষড়যন্ত্রকারীদের ষড়যন্ত্র থেকে ঈমানদার মুসলমানদের রক্ষা করা, বাতিল শক্তির সমস্ত চক্রান্ত-ষড়যন্ত্রকে উৎখাত-নস্যাত করার মালিক আল্লাহ। হকের রাজ প্রতিষ্ঠা বাতিল শক্তিকে চিরতরে নস্যাৎ করে দিতে আল্লাহর কাছে বিশেষ সাহায্য কামনা করা হয়। মোনাজাতে বিশ্ব শান্তি ও কল্যাণের পাশাপাশি আত্মশুদ্ধির জন্য আল্লাহর সাহায্য কামনা করা হয়।

এদিকে বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ধর্মপ্রাণ মানুষজন ইজতেমায় মাঠে উদ্দেশে রওনা হন। লাখো মানুষে মুখরিত এই তুরাগতীরে অনেকে পৌঁছাতে না পেরে রাস্তাতেই অনেকে আনেকে মোনাজাতে অংশ নেন। অনেকেই আবার খোলা মাঠে, যানবাহনে, বহুতল ভবন ও বাসার ছাদে থেকে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন। কষ্ট হলেও আক্ষেপ নেই তাদের।

আগামী ২০ থেকে ২৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা এতে অংশ নেবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments