Friday, June 25, 2021
Home জাতীয় একদিনে আরও ২৫৪৮ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ৩৫ জনের

একদিনে আরও ২৫৪৮ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ৩৫ জনের

আ.জা. ডেক্স:

দেশে ক্রমেই বাড়ছে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও দুই হাজার ৫৪৮ জন। ফলে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ১৮ হাজার ৬৫৮ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ৩৫ জন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল দুই হাজার ৮৩৬ জনে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস বিষয়ক বুলেটিনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। বুলেটিন পড়েন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৩৬১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং পরীক্ষা করা হয় ১২ হাজার ২৭টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ১০ লাখ ৯১ হাজার ৩৪টি। নতুন পরীক্ষা করা নমুনায় করোনা ধরা পড়েছে দুই হাজার ৫৪৮ জনের। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ১৮ হাজার ৬৫৮ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৫ জনের। ফলে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেলেন দুই হাজার ৮৩৬ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও এক হাজার ৭৬৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ২০ হাজার ৯৭৮ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের পুরুষ ২৮ জন এবং নারী সাতজন। এদের মধ্যে ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব চারজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব আটজন, ষাটোর্ধ্ব ১৩ জন, সত্তরোর্ধ্ব চারজন, ৮০ বছরের বেশি বয়সী তিনজন, ৯০ বছরের বেশি বয়সী একজন এবং শতবর্ষী একজন ছিলেন। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ছিলেন ১১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ছয়জন, খুলনা বিভাগের ছয়জন, সিলেট বিভাগের চারজন, রংপুর বিভাগের চারজন, বরিশাল বিভাগের তিনজন এবং রাজশাহী বিভাগের ছিলেন একজন। গত বৃহস্পতিবারের বুলেটিনে বলা হয়, করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও অর্ধশত মৃত্যু হয়েছে। আর ১২ হাজার ৩৯৮টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয় আরও দুই হাজার ৮৫৬ জনের দেহে। সে হিসাবে আগের ২৪ ঘণ্টার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ও মৃত্যুÑউভয়ই কমেছে। দেশে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড আছে ৬৪ জনের। সে তথ্য জানানো হয়, ৩০ জুনের বুলেটিনে। সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড চার হাজার ১৯ জনের, যা জানানো হয় ২ জুলাইয়ের বুলেটিনে। শুক্রবারের বুলেটিনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২১ দশমিক ১৯ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২০ দশমিক ০৪ শতাংশ। আর রোগী শনাক্ত তুলনায় সুস্থতার হার ৫৫ দশমিক ৩৩ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

করোনার মধ্যেও সক্রিয় জীবনযাপন করার পরামর্শ দেন ডা. নাসিমা। তিনি বলেন, সক্রিয় জীবনযাপনের জন্য প্রতিনিয়ত ব্যায়াম করা এবং সচল থাকা, সেটা যেন আমরা মেনে চলি। পাশাপাশি বয়স্ক, শিশু ও গর্ভবতী মায়েদের প্রতি বিশেষ নজর দিতে বলেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। শিশুদের বিষয়ে ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, যারা মাতৃদুগ্ধ পান করান, তারা যেন এটা অব্যাহত রাখেন। শিশুদের মায়ের দুধের প্রতি সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে-এটা যেন আমরা মনে রাখি। শিশুরা যেন মায়ের দুধ পান করে। ছয় মাস পর্যন্ত শুধুমাত্র মায়ের দুধ খাওয়ানো যায়। এতে শিশুর পুষ্টি নিশ্চিত হয়। তিনি বলেন, সবাই নিজেদের মানসিক স্বাস্থ্যকে ভালো রাখবেন। আপনারা মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য সৃষ্টিশীল কাজে সময় দেবেন। বাগান করতে পারেন। যেকোনো শিশুদের ছবি দেখে আমরা মন ভালো রাখতে পারি। করোনাকালে শিশুরা ঘরের মধ্যে আটকে আছে। শিশুরা যেন এই সময়ে তাদের মন ভালো রাখে, এজন্য অভিভাবকরা বিশেষভাবে নজর দেবেন এবং খেয়াল রাখবেন সেদিকে।

করোনার এই কালে খাবার গ্রহণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রোগপ্রতিরোধ বৃদ্ধি করে, খাদ্য তালিকায় এসব খাদ্য রাখি-ভিটামিন সি-সমৃদ্ধ টাটকা ফলমূল, শাকসবজি। জিংক রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতায় বাড়ায়। আমিষ জাতীয় খাবারের মধ্যে জিংক পাওয়া যায়। খাদ্য তালিকায় যেন আমিষ আমরা রাখি। যেসব খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, সেগুলো আমরা যেন এড়িয়ে চলি। যেমন অতিরিক্ত তেল, চর্বি, লবণ ও চিনি। তাছাড়া ধুমপান ও যেকোনো ধরনের মাদককে পরিহার করা স্বাস্থ্যের জন্য আবশ্যক। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, করোনার তথ্য পেতে ও করোনাকালে জনগণকে স্বাস্থ্যসেবা দিতে স্বাস্থ্য অধিদতফর থেকে চালু করা হটলাইন নম্বরগুলোতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৩ হাজার ১০৩টি ফোনকল এসেছে। এর মধ্যে করোনা বিষয়ক স্বাস্থ্যসেবা পেতে ফোনকল এসেছে মাত্র ৪ হাজার ৬০০টি। এদিকে, হটলাইনগুলো চালুর পর এ পর্যন্ত মোট ফোনকল গ্রহণ করা হয়েছে এক কোটি ৭৩ লাখ ৯৩ হাজার ৫৫৩টি। এর মধ্যে করোনা বিষয়ক স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে ফোন এসেছে মাত্র লাখ ২০ হাজার ৫৭৫টি।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য বাতায়নে (১৬২৬৩) গত ২৪ ঘণ্টায় ফোন এসেছে ১৩ হাজার ৯১৮টি এবং এখানে এ পর্যন্ত ফোন এসেছে ৭৪ লাখ ১৫ হাজার ৩২২টি। জাতীয় কল সেন্টার (৩৩৩) হটলাইন নম্বরে ২৪ ঘণ্টায় ফোনকল গ্রহণ করা হয়েছে ৬৮ হাজার ২৫৭টি এবং এ পর্যন্ত ৯৬ লাখ ৭৪ হাজার ৬১৬টি। আইইডিসিআরের (১০৬৫৫) দুটো হটলাইন নম্বরে ২৪ ঘণ্টায় ফোন এসেছে ৯২৮টি এবং এ পর্যন্ত ৩ লাখ ৩ হাজার ৬১৫টি। স্বাস্থ্য বাতায়নের যে ফোন নম্বর, সেটিতে করোনা ছাড়াও অন্যান্য স্বাস্থ্য বিষয়ক সকল সেবা প্রদান করা হয়। টেলিমেডিসিন সেবায় করোনার জন্য প্রতিদিন ৩৫ জন চিকিৎসক, ১০ জন স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ দুই শিফটে ৯০ জন স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছেন বলেও জানান নাসিমা সুলতানা। বুলেটিনে প্রতিদিনের মতো করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান ডা. নাসিমা। গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহর থেকে ছড়ানোর পর গোটা বিশ্বকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করেছে করোনাভাইরাস। বিশ্বজুড়ে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এখন এক কোটি ৫৬ লাখ ৫৯ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছয় লাখ ৩৬ হাজারের বেশি। তবে সুস্থ হয়েছেন সাড়ে ৯৫ লাখের মতো রোগী। বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর এতে প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

জামালপুরে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

জামালপুর প্রতিনিধি: “সংকটে, সংগ্রামে ও অর্জনে গণমানুষের পাশে আওয়ামী লীগ” এই প্রতিপাদ্যের আলোকে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে জামালপুরে বাংলাদেশ আওয়ামী...

শেখ হাসিনা ফিরেছিলেন বলেই দেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সেদিন দেশে ফিরে এসেছিলেন বলেই...

দেওয়ানগঞ্জের শারীরিক প্রতিবন্ধী শাহিদা আক্তারকে ২০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান

নিজস্ব সংবাদদাতা: জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের সানন্দবাড়ী বাজার এলাকার শারীরিক প্রতিবন্ধী শাহিদা আক্তারকে ২০ হাজার টাকা...

ইসলামপুরে স্বাস্থ্য বিভাগের বার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

ওসমান হারুনী: জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের বার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মিলনায়তনে উন্নয়ন সংঘ...

Recent Comments