Friday, August 19, 2022
Homeআন্তর্জাতিককরোনার মুখের খাওয়ার ওষুধ অনুমোদন চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

করোনার মুখের খাওয়ার ওষুধ অনুমোদন চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

আ.জা. আন্তর্জাতিক:

করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য প্রথমবারের মতো খাওয়ার ট্যাবলেটের অনুমোদন চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান। গত সোমবার মার্কিন ওষুধ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার কাছে ওষুধটি ব্যবহারের জন্য আবেদন করা হয়। করোনা আক্রান্ত রোগীদের এটিই বিশ্বের প্রথম মুখের খাওয়ার কোনো ওষুধ। করোনা নিয়ন্ত্রণে সারাবিশ্বে চলছে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কর্মসূচি। এর মাঝে নতুন দিগন্তের বার্তা নিয়ে এসেছে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মার্ক অ্যান্ড কোম্পানি। বিশ্বে প্রথমবারের মতো অনুমোদন পেতে যাচ্ছে তাদের উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মুখে খাওয়ার ট্যাবলেট। যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন এর অনুমোদন দিলে বাড়িতে কোভিড-১৯ চিকিৎসার নতুন সুযোগ উন্মোচিত হবে। মলনুপিরাভির নামের ওষুধটির পরীক্ষার ফলাফল এই মাসের শুরুতে প্রকাশ করা হয়। এতে দেখা যায়, যেসব করোনা রোগীর হালকা থেকে মাঝারি লক্ষণ এবং অন্তত একটি রিস্ক ফ্যাক্টর রয়েছে তাদের হাসপাতালে ভর্তি এবং মৃত্যুর পরিমাণ ৫০ শতাংশ কমাতে সক্ষম ওষুধটি। রিজব্যাক বায়োথেরাফিউটিকসের সঙ্গে যৌথভাবে প্রস্তুত করা ওষুধটির অন্তবর্তী কার্যক্ষমতার কারণে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ এটি কিনতে আগ্রহ দেখিয়েছে। মালয়েশিয়া, সাউথ কোরিয়া এবং সিঙ্গাপুর ওষুধটি পেতে চুক্তি করতে যাচ্ছে। প্রস্তুতকারক সংস্থাটি ওষুধটির ১৭ লাখ কোর্স দিতে মার্কিন সরকারের সঙ্গে চুক্তি করেছে। প্রতি কোর্সের মূল্য ধরা হয়েছে ৭শ’ মার্কিন ডলার। তাদের আশা ২০২১ সালের শেষ নাগাদ তারা এক কোটি কোর্স ওষুধ তৈরি করতে পারবে। এ ছাড়া ভারতভিত্তিক কিছু প্রস্তুতকারককেও ওষুধটি তৈরির অনুমতি দিতে সম্মত হয়েছে কোম্পানিটি। এর ফলে বিশ্বের একশ’টি নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশে ওষুধটি সরবরাহ করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments