Tuesday, November 30, 2021
Home জাতীয় করোনায় শিল্প খাতে ঋণ বিতরণ ও আদায় উভয়ই কম হয়েছে

করোনায় শিল্প খাতে ঋণ বিতরণ ও আদায় উভয়ই কম হয়েছে

আ.জা. ডেক্স:

করোনার প্রকোপ ছিল গত বছরের প্রায় পুরো সময়। তাতে শিল্প খাতে ঋণ বিতরণ ও আদায় উভয়ই কম হয়েছে। বিগত ২০২০ সালের পুরো সময়ে শিল্প খাতে মোট ৩ লাখ ৬১ হাজার ৩০৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ হয়েছিল। আর ২০১৯ সালে যা ছিল ৪ লাখ ২৬ হাজার কোটি টাকা। ওই হিসেবে এক বছরে শিল্প ঋণ বিতরণ ১৫ শতাংশ বা ৬৩ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা কমেছে। তবে বড় শিল্পের তুলনায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতে ঋণ বিতরণ বাড়তে শুরু করেছিল। তবে গত বছরের শুরু থেকেই করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় এসএমই খাতের শিল্পগুলোই সবচেয়ে ক্ষতিতে পড়ে। অবশ্য ওসব শিল্পের ক্ষতি বিবেচনায় নিয়ে তা মোকাবেলায় সরকার গত বছরের এপ্রিলে সিএমএসএমই, শিল্প ও সেবাসহ বিভিন্ন খাতের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১ লাখ ২১ হাজার ৩৫৩ কোটি টাকার মোট ২১টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, দেশে করোনার প্রভাব বাড়তে থাকায় উদ্যোক্তা যথাসময়ে ঋণের অর্থ পরিশোধ করতে পারেনি। ফলে ওই সময়ে ঋণ আদায় অনেক কমে যায়। অবশ্য বছরের শুরুতে শিল্প খাতে ঋণ বিতরণ ও আদায় যে হারে কমেছিল শেষের দিকে তাতে খানিকটা উন্নতি হয়। ফলে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় খেলাপি ঋণের পরিমাণ সামান্য বেড়েছে। গত বছরের পুরো সময়ে ঋণ পরিশোধ করলে খেলাপি করা যাবে না এমন নিয়মের কারণে যে হারে খেলাপি বাড়ার কথা সে হারে বাড়েনি। গত ডিসেম্বর শেষে শিল্প খাতে ব্যাংকগুলোর বকেয়া স্থিতি দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৭২ হাজার ৩৫২ কোটি টাকা। আগের বছর শেষে যা ৫ লাখ ৪৭ হাজার ৪১০ কোটি টাকা ছিল। তার মানে বকেয়া স্থিতি বেড়েছে ৪ দশমিক ৫৬ শতাংশ। বকেয়া স্থিতির এ হারে বাড়লেও খেলাপি ঋণ মাত্র শূন্য দশমিক ৬৪ শতাংশ বেড়ে ৪৫ হাজার ৪১৫ কোটি টাকা হয়েছে। যদিও ২০১৯ সাল শেষে খেলাপি ঋণ ছিল ৪৫ হাজার ১২৭ কোটি টাকা।

সূত্র জানায়, গত ডিসেম্বর প্রান্তিকে ব্যাংকগুলো ১ লাখ ৫৩৪ কোটি টাকার শিল্পঋণ বিতরণ করে। আগের বছরের একই প্রান্তিকে যার পরিমাণ ছিল ১ লাখ ১১ হাজার ৬২৩ কোটি টাকা। ফলে ওই প্রান্তিকে বিতরণ কমেছে ১১ হাজার ৮৯ কোটি টাকা বা ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ। অবশ্য তার আগের দুই প্রান্তিকে বিতরণের হার আরো কম ছিল। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় গত সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে ১২ দশমিক ৮৬ শতাংশ কমে ৯৪ হাজার ৮৫০ কোটি টাকায় নেমে আসে। আর জুন প্রান্তিকে ৩৫ দশমিক ২৫ শতাংশ কমে নামে ৭৪ হাজার ২৫৭ কোটি টাকায়। তবে করোনার প্রভাব শুরুর আগে মার্চ প্রান্তিকে ১ দশমিক ৯৩ শতাংশ বেড়ে ৯১ হাজার ৬৬২ কোটি টাকা বিতরণ হয়।

সূত্র আরো জানায়, ২০২০ সালে শিল্প খাতে ঋণ বিতরণের পাশাপাশি আদায় ৮ দশমিক ৯২ শতাংশ কমে ৩ লাখ ১৯ হাজার ২৭৪ কোটি টাকায় নেমে যায়। আগের বছর যেখানে আদায় ছিল ৩ লাখ ৫০ হাজার ৫৩০ কোটি টাকা। শুধুমাত্র গত ডিসেম্বর প্রান্তিকে আদায় ৩ দশমিক ৬২ শতাংশ বেড়েছে। ২০২০ সালের ডিসেম্বর প্রান্তিকে ৯২ হাজার ৭১৭ কোটি টাকা আদায় হয়। অথচ আগের বছরের একই সময়ে ঋণ আদায়ের পরিমাণ ছিল ৮৯ হাজার ৪২৭ কোটি টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

অ্যান্টার্কটিকায় প্রথমবারের মতো এয়ারবাসের অবতরণ

আ.জা. আন্তর্জাতিক: প্রথমবারের মতো অ্যান্টার্কটিকায় অবতরণ করেছে একটি এয়ারবাস। অ-৩৪০ মডেলের এই বিশালাকার উড়োজাহাজটি দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউন থেকে...

ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আনুষ্ঠানিক আলোচনা শুরু

আ.জা. আন্তর্জাতিক: ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোতে নিযুক্ত রুশ প্রতিনিধি মিখাইল উলিয়ানভ বলেছেন, ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আনুষ্ঠানিক আলোচনা শুরু হওয়ার...

মন্ত্রী নাকি রকস্টার?

আ.জা. বিনোদন: সাজু খাদেম মঞ্চে ডা. মুরাদ হাসানকে নিয়ে বিশেষণ ব্যবহার করলেন খানিকক্ষণ, কেননা এখন প্রতিমন্ত্রী বক্তব্য দেবেন...

সেন্সরে জমা পড়ল ‘যুদ্ধজয়ের কিশোর নায়ক’

আ.জা. বিনোদন: ক্যারিয়ারের প্রথম দুটি চলচিত্রই মুক্তিযুদ্ধের গল্প নিয়ে। শায়লা রহমান তিথির প্রযোজনা ও পরিচালনায় মুক্তিযুদ্ধের গল্পভিত্তিক চলচিত্র...

Recent Comments