Monday, June 24, 2024
Homeরাজনীতিকুমিল্লা-৯ আসন : ভোটের পরিবেশ নিয়ে শঙ্কা নেই জাসদ প্রার্থীর

কুমিল্লা-৯ আসন : ভোটের পরিবেশ নিয়ে শঙ্কা নেই জাসদ প্রার্থীর

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা-৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) আসনে ভোটের সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) মনোনীত প্রার্থী মনিরুল আনোয়ার মনির।

শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) বিকেলে ভোটের সার্বিক পরিবেশ পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চাইলে তিনি এ মন্তব্য করেন। মনিরুল মশাল প্রতীক নিয়ে প্রথমবারের মতো জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন।

জাসদ প্রার্থী বলেন, আমরা ভোটারদের কাছাকাছি যাচ্ছি। গণসংযোগ করছি। তাদের কাছে ভোট চাইছি। তবে বাস্তবতা হচ্ছে সবার মধ্যেই একটি স্বতঃস্ফূর্ততা তৈরি হয়েছে। জনগণ বলছে, তারা কেন্দ্রে যাবে এবং ভোট দেবে। তবে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার জন্য তারা একটু নিরাপত্তা চাচ্ছেন। এর বাইরে এখন পর্যন্ত সুন্দর পরিবেশ রয়েছে এবং কোনো ধরনের শঙ্কা তৈরি হয়নি। 

মশাল প্রতীকের এ প্রার্থী বলেন, ভোটারদের আমরা বারবার আশ্বস্ত করেছি; নির্বাচন কমিশনও বলেছেন, কোনো ধরনের খারাপ পরিস্থিতি তৈরি হবে না। নির্ভয়ে আপনারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। এছাড়া সুষ্ঠু ভোটের আশ্বাসেই আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি।

তিনি বলেন, ভোটের মাঠে কেউ হেভিওয়েট নয়। সবাই প্রার্থী। সবাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। হেভিওয়েট হলে তো ঘরে বসেই নির্বাচন করতেন। কিন্তু আমি দেখেছি সবাই মানুষের কাছাকাছি যাচ্ছেন।

কুমিল্লা-৯ আসনের মানুষ কেন আপনাকে ভোট দেবেন এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নের জন্য উন্নত স্মার্ট লাকসাম-মনোহরগঞ্জ গড়ার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। একইসঙ্গে দেশে চলমান উন্নয়নগুলোকে টেকসই উন্নয়ন করতে ভূমিকা পালন করবো। তাছাড়া রাজনৈতিক উন্নয়নের জন্য আমার এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা। তাই সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলব, আপনার ৭ তারিখে কেন্দ্রে আসুন। যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিন।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ না করার বিষয়টি কোন ধরনের প্রভাব ফেলবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এর কোনো প্রভাব আমরা দেখছি না। তবে তাদের যে কর্মী-সমর্থকরা রয়েছেন তারা উপস্থিত না হলে আংশিক প্রভাব তো পড়বেই। যারা ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা হয়তো নির্বাচনে আসবেন না। এরজন্য ভোটের শতকরা হার কিছুটা কমবে।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা ৯-আসনে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মোট ছয় জন দলীয় প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন— আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. তাজুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মো. গোলাম মোস্তফা কামাল, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মো. আবু বকর ছিদ্দিক, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) মনোনীত প্রার্থী মনিরুল আনোয়ার, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জমির উদ্দিন এবং বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী মো. মোয়াজ্জেম হোসেন।

আরএইচটি/এমএসএ 

Most Popular

Recent Comments