Saturday, July 31, 2021
Home আন্তর্জাতিক খাদ্য তালিকায় যোগ হতে পারে অজগর

খাদ্য তালিকায় যোগ হতে পারে অজগর

আ.জা. আন্তর্জাতিক :

বিজ্ঞানীদের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পেলেই ফ্লোরিডার মানুষের খাবার মেনুতে যুক্ত হবে অজগর সাপ। সিএনএন জানায়। ফ্লোরিডার এভারগেøডসে থাকা বার্মিজ পাইথন মানুষের খাবার উপযোগী কিনা, তা খুঁজে দেখা হচ্ছে। এতে সব দিক থেকে নিরাপদ মনে হলে বার্মিজ পাইথন ঢুকে যাবে ফ্লোরিডাবাসীর খাদ্যতালিকায়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়, মানুষের খাদ্যতালিকায় অজগর সাপকে যুক্ত করা যায় কিনা, তা অনুসন্ধান করে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে ফ্লোরিডা ফিশ অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন (এফডব্লিউউসির) কমিশন অঙ্গরাজ্যটির স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে কাজ করছে। অজগর সাপে পারদের মাত্রা নিরূপণ করে, তা মানুষের জন্য ক্ষতিকর কিনা, তা তারা যৌথভাবে খতিয়ে দেখছে। যদি নিরাপদ বিবেচিত হয়, তবে দ্রুতই অঙ্গরাজ্যটির বিভিন্ন রেস্তোরাঁর খাবারের মেনুকার্ডে জায়গা করে নেবে অজগর।অজগর একটি নির্বিষ সাপ। ফ্লোরিডার নিজস্ব প্রাণসম্পদের মধ্যে এটি অন্তর্ভুক্ত নয়। ১৯৮০-এর দশকে এভারগ্লেডস এই সাপ নিয়ে আসা হয়। অঙ্গরাজ্যটির স্থানীয় বিভিন্ন প্রাণীর জন্য এই অজগর এখন হুমকি হয়ে উঠেছে। এ অবস্থায় এফডব্লিউউসির পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে, কেউ অজগর দেখলে যেন তা সম্পর্কে দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহিত করে। তবে এখন প্রাণীটি মানুষের খাদ্যতালিকায় ঢুকে পড়লে, এরই অস্তিত্ব সংকটের মুখে পড়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

অজগর মানুষের খাবার হিসেবে নিরাপদ কিনা, তা খুঁজে বের করতে নানা পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। এ বিষয়ে এফডব্লিউউসির মুখপাত্র সিএনএনকে বলেন, ‘এতে থাকা পারদের মাত্রা পরিমাপের বিষয়টি এখনো প্রাথমিক ধাপে রয়েছে। এখন আমরা এর শরীর থেকে সংগৃহীত টিস্যুতে কী পরিমাণ পারদ আছে, তা পরিমাপ করছি।’ এভারগ্লেডস থেকে অজগর বিতাড়নের লক্ষ্যে কন্ট্রাক্টর নামে একটি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এতে এফডব্লিউউসির সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে সাউথ ফ্লোরিডা ওয়াটার ম্যানেজমেন্ট ডিস্ট্রিক্ট। এরইমধ্যে অঞ্চলটি থেকে ৬ হাজারের বেশি অজগরকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কন্ট্রাক্টর প্রকল্পের আওতায় অজগর শিকারি হিসেবে কাজ করেন ডোনা কালিল। এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত প্রথম নারী অজগর শিকারি তিনি। তাঁর ভাষায়, অজগর শিকার করা যেমন তেমনি এটি রান্না করে খাওয়াও বেশ মজার ব্যাপার। কালিল এখন পর্যন্ত ৪৭৩টি অজগর ধরে তাদের যন্ত্রণাহীন মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন। ডোনা কালিল সিএনএনকে বলেন, ‘এর রান্না বেশ মজার। খাদ্যতালিকায় যুক্ত করার মাধ্যমে অজগর বিতাড়ন প্রকল্পের সঙ্গে আরও বহু মানুষকে যুক্ত করা সম্ভব। আমাদের এখানে অজগর এক বিরাট সমস্যা। বিশেষত গবাদি পশু ও পোষা নানা প্রাণী ভীষণ ঝুঁকিতে থাকে এগুলোর কারণে। স্থানীয় সব স্তন্যপায়ী প্রাণীই এর আক্রমণের হুমকিতে রয়েছে। তাই যেকোনো মূল্যে এর সংখ্যা কমানো দরকার।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

আশ্রিতাদের মুখে মলিণ হাসি

মোহাম্মদ আলী: আজকের রমরপাড়ার আশ্রিতদের ছিল ভাসমান বসতি। শেষ আশ্রয় ছিল ইউনিয়ন পরিষদের ভবনের সামনে। সেখান থেকে ঠাঁয় হয়েছে...

জামালপুরে শারীরিক প্রতিবন্ধী শাহিদা পেলেন পুলিশ সুপারের আর্থিক সহায়তা

এম.এ.রফিক: জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ী গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধী মোছাঃ শাহিদা খাতুনকে গতকাল বুধবার তার চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার...

জামালপুর পৌরসভায় মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব সংবাদদাতা: জামালপুর পৌরসভায় কাউন্সিলর ও পৌর কর্তৃপক্ষের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে জামালপুর পৌরসভা মিলনায়তনে...

ইসলামপুরে লকডাউনে খোলা দোকান পাট, মাইকিং করে চলছে খেলার আয়োজন

ওসমান হারুনী: জামালপুরের ইসলামপুরে ‘কঠোর লকডাউনে’ খোলা রয়েছে দোকান-পাট, হাট-বাজার। বাজার ও সড়কে বাড়ছে মানুষের ভীড়। সেই সাথে বিভিন্ন্...

Recent Comments