Thursday, February 22, 2024
Homeজামালপুরজামালপুরে নান্দিনা শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা...

জামালপুরে নান্দিনা শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রধান

নিজস্ব সংবাদদাতা : জামালপুর পূর্ব অঞ্চলের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ নান্দিনা শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রধান করা হয়েছে। গত সোমবার ১৩ নভেম্বর দুপুরে নান্দিনা শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজ মাঠে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নান্দিনা শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের অধ্যক্ষ মো. দেলওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও উপাধ্যক্ষ মোঃ শহিদুজ্জামান এবং রানাগাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন মানিকের সঞ্চালনায় নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি। আলোচকের বক্তব্য রাখেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর স্টাডিজ বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মিঠুন মোস্তাফিজ, ময়মনসিংহ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. গাজী হাসান কামাল।বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আশরাফ হোসেন তরফদার, সাবেক অধ্যক্ষ বাহাজ উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানা, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমানে অন্যতম সদস্য, জামালপুর-৫ সদর আসনের এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশী রেজাউল করিম রেজনু সিআইপি, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবুল হোসেন, শেখ আনোয়ার হোসাইন কলেজের রাস্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মাহবুব উল আলম, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বেলাল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ। উদ্বোধকের বক্তব্য রাখেন ৯ নং রানাগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল জলিল। নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, তোমরা আজ নবীন, তরুণ দেশ আজ তোমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। ভালো ভাবে লেখাপড়া করে তোমরা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়বে। তোমরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তোমরা শিক্ষা অর্জন করে কেউ ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, রাজনীতিবিদ, সফল ব্যবসায়ী হবে এটাই আমার প্রত্যাশা করি। এছাড়া সময়কে অপচয় না করে, লেখা পড়ায় মন দেওয়ার আহবান জানান।নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানর মধ্যে দিয়ে সমাপ্ত হয়। একাদশ শ্রেণিতে বারশত শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ ও স্নাতক পাস তিনশত শিক্ষার্থী এবং অনার্স দুইশত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রধান করা হয়।

Most Popular

Recent Comments