Friday, January 27, 2023
Homeদেশজুড়েজেলার খবরনড়াইলে নৌকাডুবি: মরদেহ মিলেছে ২ জনের, এখনও নিখোঁজ ২

নড়াইলে নৌকাডুবি: মরদেহ মিলেছে ২ জনের, এখনও নিখোঁজ ২

নড়াইল: নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নবগঙ্গা নদীতে নৌকা ডুবির দুইদিন পর গ্রাম পুলিশ লাবু শেখ (২৮) ও খানজে শেখ (৫৭) নামের দুই ব্যক্তির মরদেহ পাওয়া গেছে।

রোববার (১ জানুয়ারি) দুপুরে ঘটনাস্থলের অদূরেই একঘণ্টার ব্যবধানে লাবু শেখ ও খানজে শেখের মরদেহ পেয়েছে খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

মরদেহ পাওয়ার বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত চারজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। তবে এখনও নিখোঁজ আছেন আরও দুইজন।

জানা গেছে, চৌকিদার লাবু মিয়া জেলার কালিয়া উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নের মাধবপাশা গ্রামের টুকু শেখের ছেলে। তিনি হামিদপুর ইউনিয়নে গ্রাম পুলিশ হিসেবে কর্মরত ছিলেন। খানজে শেখ জোকর চর গ্রামের মতিয়ার শেখের ছেলে। পেশায় তিনি একজন মোটরসাইকেল চালক ছিলেন।

তবে এখনও নিখোঁজ আছেন মারা যাওয়া গৃহবধূ নাজমার ছোট ভাই রয়েল শেখ ও ভগ্নীপতি মাহামুদ হোসেন।

উপজেলার বড়দিয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. লোকমান হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, মরদেহ পাওয়ার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কালিয়ার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোসা. আফরিন জাহান বাংলানিউজকে বলেন, খুঁজে পাওয়া দুইজনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মৃত নাজমা বেগম, তার সন্তান ও দাদির দাফন গত শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকালে ও সন্ধ্যায় সম্পন্ন হয়েছে। উদ্ধার অভিযান এখনও চলমান রয়েছে।

নড়াইল ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. মাহাবুব আলম বাংলানিউজকে বলেন, রোববার দুপুরে ঘটনাস্থলের অদূরেই এক ঘণ্টার ব্যবধানে দুইজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। দুইজন এখনও নিখোঁজ রয়েছে। সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চালানো হবে। প্রয়োজনে অভিযানের সময় আরও বাড়ানো হবে।

এর আগে শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) দিনভর অভিযান চালিয়ে বিকেল পাঁচটার দিকে দুর্ঘটনাকবলিত ছোট নৌকাটি উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) বাহিরডাঙ্গা গ্রামের এনামুল হকের মেয়ে নাজমা বেগম (২৫) দাদির মৃত্যুর খবর শুনে দেড় বছরের শিশু সন্তান নাসিম হোসেনসহ আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে স্বামীর বাড়ি বাবুপুর থেকে বাহিরডাঙ্গা গ্রামে রওনা দেন। পথে নবগঙ্গা নদীর বাহিরডাঙ্গা-চরবাহিরডাঙ্গা খেয়াঘাটে নৌকাটি ডুবে যায়।

এ সময় নৌকার মাঝিসহ ১৫ জন যাত্রীর মধ্যে নয়জন প্রাণে বেঁচে গেলেও বাকিরা ডুবে যান। পরে রাত আটটার দিকে নাজমা বেগম ও তার শিশু সন্তানের মরদেহ পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments