Tuesday, January 19, 2021
Home রাজনীতি প্রধানমন্ত্রীকে জিয়ার নামফলক লাগিয়ে দিতে বললেন গয়েশ্বর

প্রধানমন্ত্রীকে জিয়ার নামফলক লাগিয়ে দিতে বললেন গয়েশ্বর

আ.জা. ডেক্স:

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, আপনি নিজ হাতে পুরান ঢাকার ওই স্কুলে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নামফলক লাগিয়ে দিয়ে আসবেন। না হয় ক্ষমতা পরিবর্তন হলে, আপনারা রাষ্ট্রের হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে যেসব স্থাপনা বানিয়েছেন, সেসব ভাঙচুর হবে, তা প্রতিরোধ করতে পারবেন না। গতকাল বুধবার দুপুর ১টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুরান ঢাকার শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান উচ্চবিদ্যালয়ের নাম পুনর্বহালের দাবিতে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সাদেক হোসেন খোকা যখন ঢাকার মেয়র ছিলেন, তখন রাশেদ খান মেনন, মেজর রফিকুল ইসলাম, সেলিনা হোসেনসহ আওয়ামী লীগের অনেকের নামে সড়কসহ বিভিন্ন স্থাপনার নামকরণ করেন। তিনি কোন জাত দেখেন নাই, দল দেখেন নাই। তিনি দেখেছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। তিনি বলেন, এদের নামে যদি সব স্থাপনা থাকে, তাহলে জিয়াউর রহমানের নাম স্থাপনা থেকে কেন মুছতে হবে। যদি শহীদ জিয়ার নাম মুছতে হয়, তাহলে আগে রাশেদ খান মেননসহ সবার নাম মুছেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি নিজ হাতে পুরান ঢাকার ওই স্কুলে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নামফলক লাগিয়ে দিয়ে আসবেন। না হয় ক্ষমতা পরিবর্তন হলে, আপনারা যে রাষ্ট্রের হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে যেসব স্থাপনা বানিয়েছেন, তার যে ভাঙচুর হবে, তা প্রতিরোধ করতে পারবেন না।

তিনি বলেন, আমরা কেউ কবরে কাফন ছাড়া কিছু নিয়ে যাবো না। সবাই একদিন মরবো। শেখ হাসিনাও একদিন মরবেন। কবরে কাফন ছাড়া কিছু নিয়ে যাবেন না। আপনিও একদিন থাকবেন না। তাই জনগণের ক্ষমতা জনগণের কাছে বুঝিয়ে দিন। তিনি বলেন, এখনো সময় আছে, স্বেচ্ছায় যদি জনগণের ক্ষমতা তাদের কাছে হস্তান্তর করেন, তাহলে জনগণ আপনাকে ক্ষমা করবে। তা না করলে জনগণ যদি টেনে হিঁচড়ে ক্ষমতা থেকে নামায়, তাহলে আপনার মান ইজ্জত থাকবে না। গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আগামী দিনে যারা ক্ষমতায় আসবে, তা ভাঙতে কত হাজার কোটি টাকা লাগবে। রাষ্ট্রের টাকা খরচ করে বানাচ্ছেন, সেগুলো রক্ষায় ইতিহাসে হাত দেবেন না। ইতিহাস তার জায়গায় থাকতে দেন। না হয় আপনারাও মুছে যাবেন। যাদের রক্তে এদেশ স্বাধীন হয়েছে, তাদের ইতিহাস বিকৃত করবেন না। তিনি বলেন, ২৬ মার্চ পালন করা হয় শহীদ জিয়াউর রহমানের কারণে। শহীদ জিয়াই স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। ১৮ কোটি মানুষের হ্রদয়ে শহীদ জিয়ার নাম। চাইলেই মানুষের হ্রদয় থেকে মুছা যাবে না। গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, শহীদ জিয়া কিছু রেখে যাননি। বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার চেয়ে গরীব মানুষ আর নেই। তার কোনো বাড়ি নেই। বাড়ি ভাড়া দিতে পারেন না। মানববন্ধনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিবুন্নবী খান সোহেলসহ কয়েকশ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

জার্সিতে বাংলাদেশের নাম ভুলবশত বাদ পড়েছিল: বিসিবি

আ.জা. স্পোর্টস: স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে নিজেদের বর্ণিল ভাবে সাজাতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর...

তিন নাম্বার থেকে বাদ পরছেন সাকিব

আ.জা. স্পোর্টস: ব্যাটিং অর্ডারের তিন নম্বরে সাকিব আল হাসান কতটা দুর্দান্ত, তা গত বিশ্বকাপেই প্রমাণ করেছেন। ৮ ইনিংসে...

নিজের ওপর আস্থা আছে মেহেদীর

আ.জা. স্পোর্টস: টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়ে গেছে শেখ মেহেদী হাসানের। এখন অপেক্ষা ৫০ ওভারের ক্রিকেটের। অবশ্য...

খেলোয়াড়কে থাপ্পড় মেরে চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ মেসি!

আ.জা. স্পোর্টস: ক্লাব ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো লাল কার্ড দেখলেন বার্সেলোনার প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের...

Recent Comments