Friday, December 9, 2022
Homeআন্তর্জাতিকবাইডেন-পুতিন বৈঠকের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

বাইডেন-পুতিন বৈঠকের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

আ.জা. আন্তর্জাতিক :

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জেনেভায় আসন্ন বৈঠক কেমন হবে তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। রাশিয়া স¤প্রতি ‘অবন্ধু-সুলভ দেশের’ তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের নাম যোগ করেছে। এ ছাড়া দু’দেশই বলছে যে, তাদের মধ্যকার সম্পর্ক এখন প্রায় তলানিতে নেমে এসেছে। খবর বিবিসির। কান দেশেরই এখন অন্য দেশে কোন রাষ্ট্রদূত নেই। ঊর্ধ্বতন রুশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে নানা কারণে। রাশিয়া যেভাবে ইউক্রেনের ক্রাইমিয়া অঞ্চল দখল করে তা নিজ দেশের অন্তর্ভুক্ত করেছে সেটি যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষিপ্ত করেছে। তাছাড়া অন্য দেশের নির্বাচনে রাশিয়া নাক গলায় এমন অভিযোগেও কিছু নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দু’জন সাবেক মার্কিন মেরিন সেনা এখন রুশ কারাগারে বন্দী। এদের একজন গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ১৬ বছরের সাজা খাটছেন। ুই দেশের এই বৈরি সম্পর্কে আরও যুক্ত হয়েছে পুতিনকে নিয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কিছুদিন আগের করা মন্তব্য। গত মার্চে এক সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট বাইডেন তার সাক্ষাতকার গ্রহণকারীর সঙ্গে একমত হন যে, ভ্লাদিমির পুতিন আসলে একজন ‘খুনি’। কন্তু এত কিছুর পরও এই দুই দেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন তারা। রাশিয়ার কিছু মানুষ এটাকেও বড় অর্জন বলে মনে করছেন। স্কোর থিংক ট্যাংক রিয়াকের পরিচালক আন্দ্রে কুর্টানভ বলেন, ‘প্রতীকী তাৎপর্যের কথা বিবেচনা করলে এই শীর্ষ বৈঠক বেশ গুরুত্বপূর্ণ, এটি রাশিয়াকে যুক্তরাষ্ট্রের পাশে এক কাতারে স্থান দিচ্ছে। পুতিনের কাছে এই প্রতীকী ব্যাপারটা কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।’ তনি বলেন, এই বৈঠকটি হচ্ছে প্রেসিডেন্ট বাইডেন হোয়াইট হাউসে আসার পর একেবারে প্রথম পর্যায়ে এবং তার প্রথম বিদেশ সফরের সময়। তিনি নিজেই এরকম একটি বৈঠকের অনুরোধ জানিয়েছেন। এগুলো কিন্তু ভ্লাদিমির পুতিনের জন্য বোনাস পয়েন্ট। আর এটি একটি পূর্ণাঙ্গ শীর্ষ বৈঠক, অন্য কোন অনুষ্ঠানের ফাঁকে কোন সংক্ষিপ্ত সাক্ষাত নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments