Tuesday, February 27, 2024
Homeখেলাধুলাভারতের হয়ে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলে ফেলেছেন রোহিত!

ভারতের হয়ে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলে ফেলেছেন রোহিত!

কিছুদিন আগে ঘরের মাঠে কী দুর্দান্ত প্রতাপে বিশ্বকাপ খেলছিল রোহিত শর্মার ভারত। আসরের ফাইনালে তাদের সেই প্রতাপ ও উড়ন্ত গতিতে ছেদ ঘটিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তৃতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের স্বপ্ন এভাবে ভেস্তে যাবে রোহিতরা হয়তো কল্পনাও করেননি। এরপরই ভারতীয় এই অধিনায়ক ক্যারিয়ারের বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন। ধীরে ধীরে নিজেকে সীমিত ওভারের ক্রিকেট থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন রোহিত। তিনি সম্ভবত নিজের শেষ টি-টোয়েন্টিও খেলে ফেলেছেন বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

টানা ১০ ম্যাচ জিতে অপরাজেয় থেকেও বিশ্বকাপের ফাইনালে অশ্রুসিক্ত সমাপ্তি ঘটেছে রোহিতদের। এরপরই ভারত ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজে নামছে। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে শুরু হতে যাওয়া সিরিজটিতে নেই রোহিত-কোহলি কেউই। অবশ্য দুই তারকা ক্রিকেটারকে অনেক আগে থেকেই ভারতের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের দলে দেখা যাচ্ছে না। অনেকের মতে– দলটির সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিবেচনায় নেই রোহিত-কোহলি। সে কারণে দ্রুতই দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে নিজের ভবিষ্যৎ চূড়ান্ত করার জন্য বসতে যাচ্ছেন অধিনায়ক রোহিত।

এর আগেই রোহিত নিজেও নাকি জানিয়ে দিয়েছেন যে টি-টোয়েন্টিতে যাতে তাকে আর বিবেচনা না করা হয়, আর এতে তার কোনো সমস্যা নেই। ভারতীয় নির্বাচকরাও টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের সুযোগ দিতে আগ্রহী। এদিকে, রোহিত ওয়ানডে ক্যারিয়ার নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটা নিয়েও জল্পনা রয়েছে। ২০২৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপের সময়ে রোহিতের বয়স হবে প্রায় ৪০ বছর। এর আগে ওয়ানডেতে বড় টুর্নামেন্ট রয়েছে ২০২৫ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। এর ভেতর এক বছরে ভারতের মাত্র ৬টি ওয়ানডে খেলার কথা রয়েছে।

বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের বরাতে টাইমস অফ ইন্ডিয়া বলছে, ‘ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগেই রোহিত জানিয়ে দেন টি-টোয়েন্টিতে তাকে দলে না রাখার জন্য, তিনি বরং ভালো আছেন। নির্বাচকরা গত এক বছর ধরে টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের বেশ সুযোগ দিতে দেখা গেছে। পরের বছর জুনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তরুণদের খেলানোর স্ট্র্যাটেজি থেকে তারা সরবেন না।’

দুই টেস্টের সিরিজের আগে ভারত আগামী মাসে দক্ষিণ আফ্রিকায় তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে। প্রোটিয়াদের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য টেস্ট খেলোয়াড়দের জন্য ওয়ানডে একটি ভালো সুযোগ হতে পারে। ওই সূত্র জানিয়েছে, বোর্ড এবং নির্বাচক কমিটি মিলে পরবর্তী আইপিএল এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরই ওয়ানডে নিয়ে পরিকল্পনা করবে। রোহিত না থাকলে ফরম্যাট দুটিতে দীর্ঘমেয়াদী অধিনায়ক তৈরিরও বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া আরও বলছে, ‘এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে ২০২৫ সাল পর্যন্ত চলা বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পরবর্তী চক্রের জন্য রোহিত টেস্ট ফরম্যাটে পুরোপুরি ফোকাস করছেন। সে হিসেবে দীর্ঘ ফরম্যাটের জন্যও একজন অধিনায়ক প্রস্তুত করা

কিছুদিন আগে ঘরের মাঠে কী দুর্দান্ত প্রতাপে বিশ্বকাপ খেলছিল রোহিত শর্মার ভারত। আসরের ফাইনালে তাদের সেই প্রতাপ ও উড়ন্ত গতিতে ছেদ ঘটিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তৃতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের স্বপ্ন এভাবে ভেস্তে যাবে রোহিতরা হয়তো কল্পনাও করেননি। এরপরই ভারতীয় এই অধিনায়ক ক্যারিয়ারের বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন। ধীরে ধীরে নিজেকে সীমিত ওভারের ক্রিকেট থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন রোহিত। তিনি সম্ভবত নিজের শেষ টি-টোয়েন্টিও খেলে ফেলেছেন বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

টানা ১০ ম্যাচ জিতে অপরাজেয় থেকেও বিশ্বকাপের ফাইনালে অশ্রুসিক্ত সমাপ্তি ঘটেছে রোহিতদের। এরপরই ভারত ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজে নামছে। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে শুরু হতে যাওয়া সিরিজটিতে নেই রোহিত-কোহলি কেউই। অবশ্য দুই তারকা ক্রিকেটারকে অনেক আগে থেকেই ভারতের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের দলে দেখা যাচ্ছে না। অনেকের মতে– দলটির সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিবেচনায় নেই রোহিত-কোহলি। সে কারণে দ্রুতই দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে নিজের ভবিষ্যৎ চূড়ান্ত করার জন্য বসতে যাচ্ছেন অধিনায়ক রোহিত।

এর আগেই রোহিত নিজেও নাকি জানিয়ে দিয়েছেন যে টি-টোয়েন্টিতে যাতে তাকে আর বিবেচনা না করা হয়, আর এতে তার কোনো সমস্যা নেই। ভারতীয় নির্বাচকরাও টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের সুযোগ দিতে আগ্রহী। এদিকে, রোহিত ওয়ানডে ক্যারিয়ার নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটা নিয়েও জল্পনা রয়েছে। ২০২৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপের সময়ে রোহিতের বয়স হবে প্রায় ৪০ বছর। এর আগে ওয়ানডেতে বড় টুর্নামেন্ট রয়েছে ২০২৫ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। এর ভেতর এক বছরে ভারতের মাত্র ৬টি ওয়ানডে খেলার কথা রয়েছে।

বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের বরাতে টাইমস অফ ইন্ডিয়া বলছে, ‘ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগেই রোহিত জানিয়ে দেন টি-টোয়েন্টিতে তাকে দলে না রাখার জন্য, তিনি বরং ভালো আছেন। নির্বাচকরা গত এক বছর ধরে টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের বেশ সুযোগ দিতে দেখা গেছে। পরের বছর জুনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তরুণদের খেলানোর স্ট্র্যাটেজি থেকে তারা সরবেন না।’

দুই টেস্টের সিরিজের আগে ভারত আগামী মাসে দক্ষিণ আফ্রিকায় তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে। প্রোটিয়াদের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য টেস্ট খেলোয়াড়দের জন্য ওয়ানডে একটি ভালো সুযোগ হতে পারে। ওই সূত্র জানিয়েছে, বোর্ড এবং নির্বাচক কমিটি মিলে পরবর্তী আইপিএল এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরই ওয়ানডে নিয়ে পরিকল্পনা করবে। রোহিত না থাকলে ফরম্যাট দুটিতে দীর্ঘমেয়াদী অধিনায়ক তৈরিরও বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া আরও বলছে, ‘এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে ২০২৫ সাল পর্যন্ত চলা বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পরবর্তী চক্রের জন্য রোহিত টেস্ট ফরম্যাটে পুরোপুরি ফোকাস করছেন। সে হিসেবে দীর্ঘ ফরম্যাটের জন্যও একজন অধিনায়ক প্রস্তুত করা বোর্ডের এজেন্ডার মূল বিষয় হবে। হার্দিক পান্ডিয়া চোটপ্রবণ হওয়ায় নির্বাচকরা ওয়ানডেতে তারও বিকল্প খুঁজতে পারেন।’ 

বোর্ডের এজেন্ডার মূল বিষয় হবে। হার্দিক পান্ডিয়া চোটপ্রবণ হওয়ায় নির্বাচকরা ওয়ানডেতে তারও বিকল্প খুঁজতে পারেন।’ 

Most Popular

Recent Comments