Saturday, June 25, 2022
Homeজামালপুরমাদারগঞ্জে সোনালি আশেঁ স্বপ্ন বুনছেন কৃষক

মাদারগঞ্জে সোনালি আশেঁ স্বপ্ন বুনছেন কৃষক

খাদেমুল ইসলাম:

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় সোনালি আশেঁ স্বপ্ন বুনছেন কৃষকরা। এখন পরিবেশবান্ধব পাটের বহুমূখী ব্যবহার হচ্ছে। সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগে ফলে দেশে-বিদেশে পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা বাড়ছে। পাট চাষে উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি, দরপতন ও পাট পচানোর পানি সংকটসহ বিভিন্ন কারণে কৃষকরা পাট চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলে ছিল। কয়েক বছর ধরে পাটের ফলন ও বাজারমূল্য ভালো হাওয়ায় আবারও এ উপজেলায় সোনালি আশঁ খ্যাত পাট চাষে সুদিন ফিরে আসতে শুরু করেছে। পাট ক্ষেতগুলো এখন সবুজ রঙের আল্পনায় সেজে উঠেছে। পাটের ভালো ফলন পাওয়ার স্বপ্ন বুনছেন কৃষকরা। এবার পাটের ন্যায্যমূল্য পেলে আগামীতেও ব্যাপকভাবে পাট চাষ করবে বলে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন এ উপজেলার কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৩ হাজার ২৯০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। ৩ হাজার ৪০৬ হেক্টর জমিতে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হলেও এবার মৌসুমে গত বছরের তুলনায় ৭৯০ হেক্টর বেশি জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। গত বছর পাটের আবাদ হয়েছিল ২ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে।
জোড়খালী ইউনিয়নের ফুলজোড় গ্রামের কৃষক উজ্জল মিয়া জানান, গত বছর ৩ বিঘা জমিতে পাট চাষ করে ভালো ফলন পেয়েছি। পাটের দামও খুবই ভালো ছিল। এজন্য এবার ৫বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। আশা করি ভালো ফলন ও দাম পাবো।
সরেজমিন দেখা যায়, উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় পাট চাষ করেছেন কৃষকরা। পাটের পাতা সবুজ হওয়ায় পাট ক্ষেতগুলো যেন সবুজ রঙের আল্পনায় সেজে উঠেছে। কেউ পাট গাছের পরিচর্যা ব্যস্ত, আবার কেউ পাট কাটা কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
কড়ইচড়া ইউনিয়নের মহিষবাথান গ্রামের কৃষক মোজাম্মেল, বালিজুড়ী ইউনিয়নের সুখনগরী গ্রামের কৃষক আলফাজসহ বেশ কয়েকজন পাট চাষী জানান, সরকারের নানামূখী পদক্ষেপের ফলে বর্তমানে পাটের চাহিদা ও দাম খুবই ভালো। তা ছাড়াও পাটকাটি বিক্রি করে বাড়তি আয় করা যায়। এজন্যই পাট চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহফুযুল ইসলাম জানান, এ উপজেলায় পাট চাষের সুদিন ফিরছে। পাট চাষ করে এখন অনেক কৃষক লাভবান হচ্ছেন। এবার ৩ হাজার ২৯০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় ৭৯০ হেক্টর বেশি জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে কৃষকরা পাটের ভালো ফলন পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments