Saturday, November 28, 2020
Home ময়মনসিংহ ময়মনসিংহ বিভাগের ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ, প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তি কম

ময়মনসিংহ বিভাগের ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ, প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তি কম

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ
বহুল প্রত্যাশিত ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছর পূর্তি আজ ১৩ অক্টোবর, ২০২০খ্রি.। বিগত পাঁচ বছরেও বিভাগীয় শহরে দৃশ্যমান কোনো উন্নতি না হলেও নতুন বিভাগীয় সদর দপ্তর স্থাপনের জন্য প্রস্তাবিত ৮০২ দশমিক ৫৭ একর জমি বরাদ্দের প্রশাসনিক অনুমতির সুখবরটি মিলেছে। দ্রুত সময়ে মধ্যে ডিপিপি এবং টিএপিপি প্রণয়ন শেষে প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদনের পর কাজ শুরু হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি। এছাড়াও পিপিপির মাধ্যমে জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ সড়কটি দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে ১০ লেনের সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে প্রকল্পটি ইতিমধ্যেই ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিপরিষদ সভায় অনুমোদন লাভ করেছে। এ ছাড়াও দেশের সর্ববৃহৎ ৫০ মেগাওয়াট স্যোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র ময়মনসিংহের সুতিয়াখালিতে স্থাপিত হয়েছে, যা এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কম খরচে পণ্য পরিবহনের লক্ষ্যে নৌ প্রটোকল রুট হিসেবে ব্রহ্মপূত্র নদ খননের চলমান প্রকল্পটি চলতি অর্থ বছরে কোনো বরাদ্দ না থাকায় অধিকাংশ ঠিকাদারগণ ব্রহ্মপূত্র নদ থেকে ড্রেজার সরিয়ে নিয়ে গেছে, কাজের গতিও থমকে গেছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠা হলেও পাঁচ বছরেও ২২টি বিভাগীয় দপ্তর এখনও স্থাপিত হয়নি এটি অত্যন্ত দুঃখজনক।
ভূক্তভোগীরা জানান, দেড়শত বছরের প্রাচীন ময়মনসিংহ নগরীর সরু রাস্তায় ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যানবাহন চলাচলের কারণে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটের কবলে পড়ছে মানুষ। অত্র অঞ্চলের প্রায় দুই কোটি জনতার প্রাণকেন্দ্র ময়মনসিংহ শহরে চিকিৎসাসহ নানা কাজে এসে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটের কবলে পড়ে দীর্ঘক্ষণ আটকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীর। ফলে ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরটিতে বর্তমানে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ইকরামুল হক টিটু কর্তৃক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীকে দেয়া ডিও লেটারের প্রেক্ষিতে সড়ক বিভাগ রাস্তা প্রশস্তকরণের একটি সমীক্ষা চালালেও তা এখনো আলোর মূখ দেখছে না। তাই অবিলম্বে জনস্বার্থে বিভাগীয় শহরের প্রধান প্রধান রাস্তাগুলো ৪ লেনে উন্নীতকরণসহ শহরের সকল রাস্তা প্রশস্ত করা এবং ময়মনসিংহ শহরের মাঝখান দিয়ে চলমান রেল লাইনটি শহরের বাইরে স্থানান্তর করা বিশেষ প্রয়োজন।
ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছরেও গুরুত্বপূর্ণ ও প্রত্যাশিত অনেক উন্নয়ন এখনো সাধিত হয়নি। তন্মধ্যে ময়মনসিংহ মেট্রোপলিটন পুলিশ (এমএমপি) প্রতিষ্ঠা, ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠন করা, ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরের ভিতরের আন্তঃজেলার সড়কসমূহ চার লেনে উন্নীতকরণ করা, ময়মনসিংহ-নেত্রকোণা-মোহনগঞ্জ-ধর্মপাশা-জয়শ্রী বাজার-জামালগঞ্জ-সুনামগঞ্জের হাওরের উপর দিয়ে উড়াল সেতু ও সড়ক নির্মাণ, ময়মনসিংহ মেট্রোপলিটন আদালত স্থাপন, ময়মনসিংহ মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, ময়মনসিংহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজকে পূর্ণাঙ্গ ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, ময়মনসিংহ বিভাগের সকল জেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, ময়মনসিংহ বিভাগের প্রতিটি জেলায় অর্থনৈতিক জোন স্থাপন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরে একটি শ্রম আদালত স্থাপন, হালুয়াঘাট-নালিতাবাড়ী-ধানুয়া-কামালপুরে ইমিগ্রেশনসহ পূর্ণাঙ্গ স্থলবন্দর প্রতিষ্ঠা সময়ের দাবী। এ্ছাড়াও শেরপুর জেলায় মেডিকেল কলেজ স্থাপন করতে হবে। ত্রিশালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্থাপনের ইতিপূর্বে সরকারের নেয়া নীতিগত সিদ্ধান্তের বাস্তবায়ন। দেওয়ানগঞ্জের বাহাদুরাবাদ ঘাট ও বালাশী ঘাট ফুলছড়ি গাইবান্দার মধ্যে যমুনা নদীর তলদেশে রেল ও সড়ক পথসহ ট্যানেল নির্মাণ, ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ-জামালপুর-তারাকান্দি হয়ে বঙ্গবন্ধু যমুনাসেতু পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইন স্থাপন, ময়মনসিংহ-জামালপুর-তারাকান্দি-বঙ্গবন্ধু যমুনা সেতু হয়ে রংপুর-দিনাজপুর পর্যন্ত, দেওয়ানগঞ্জ-জামালপুর-ময়মনসিংহ হয়ে চট্রগ্রাম ও সিলেট রুটে আরো ৩টি আন্ত:নগর ট্রেন চালু করা সহ ময়মনসিংহ-ঢাকা রেলপথে প্রতি ঘন্টায় ঘন্টায় যাত্রীবান্ধব ট্রেন চালু করার দাবী জানিয়েছেন ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়ন পরিষদ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমিন কালাম।
ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি জানান, বর্তমান সরকার দেশের অষ্টম বিভাগের সার্বিক উন্নয়নে অন্যন্ত আন্তরিক। ইতিমধ্যেই ব্রহ্মপুত্র নদের ওপাড়ে ময়মনসিংহ সদর উপজেলায় ভূমিতে আধুনিক, পরিকল্পিত নতুন বিভাগীয় সদর দপ্তর প্রতিষ্ঠার জন্য গণপূর্ত ও নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন কাজ শুরু করেছে। এছাড়াও আন্তর্জাতিকমানের বিভাগীয় স্টেডিয়াম নির্মাণেরও দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।
নবগঠিত ময়মনসিংহ বিভাগের নানামূখী উন্নয়নের জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কণ্যা মাদার অব হিউম্যানিটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ময়মনসিংহ বিভাগবাসীর পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানান ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের (মসিক) প্রথম মেয়র ইকরামূল হক টিটু । প্রধানমন্ত্রী চান একটি আধুনিক ও সুন্দর বিভাগীয় শহর গড়ে তুলতে। প্রধানমন্ত্রীর অভিপ্রায় অনুসারে নাগরিকদেরকে একটি বাসযোগ্য সুন্দর নগরী উপহার দেয়ার লক্ষ্যে সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে পরিকল্পিত শহর গড়ে তোলার জন্য দীর্ঘমেয়াদী একটি মাস্টারপ্ল্যাণ প্রণয়ন করা হচ্ছে। নগরীর রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণের জন্য ১ হাজার ৫৭৫ কোটি টাকার প্রকল্পটি এখন একনেকে পাসের অপেক্ষায়। এছাড়াও ২টি পার্ক, একটি বাস টার্মিনাল ও একটি ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণের জন্য ৪৪২ কোটি টাকার টাকার আরেকটি প্রকল্প এবং আধুনিক উন্নতমানের ২০ তলা নগর ভবন নির্মাণে অনুমোদনের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানের জন্য একটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিযুক্ত করা হয়েছে। পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের পরামর্শ অনুয়ায়ী পরবর্তীতে প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়ণ করা হবে। আধুনিক ও উন্নতমানের বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অংশ হিসেবে মসিকের বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য আরেকটি প্রস্তাবনা অনুমোদনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়মনসিংহ অঞ্চলের বিভিন্ন জাতীয় মহাসড়কের অংশ ময়মনসিংহ নগরীর ভিতর দিয়ে অতিবাহিত হয়েছে। কিন্তু শহরের বাইরের অংশগুলো চারলেনে প্রশস্ত করা হলেও শহরের ভিতরে সওজ’র রাস্তাটুকু এখনো প্রশস্ত করা হয়নি। মেয়র ইকরামুর হক টিটু’র প্রদত্ত ডিও লেটারের প্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপির নির্দেশে সওজ রাস্তাগুলো প্রশস্তকরণে সমীক্ষা চালালেও তা বাস্তবায়নে এখনো আলোর মূখ দেখছে না।
দেশের অষ্টম বিভাগের কার্যক্রম শুরুর পর এ পর্যন্ত প্রায় ৪৫টি বিভাগীয় দপ্তর চালু হয়েছে। তন্মধ্যে ব্রহ্মপূত্র নদ খনন এবং নতুন বিভাগীয় শহর বাস্তবায়নের পথে। কেওয়াটখালি ও রহমতপুরে ব্রহ্মপূত্র নদের উপর দুটি ব্রীজ, ময়মনসিংহ- মুক্তাগাছা-মধুপুর সড়ক প্রশস্তকরণে ১১১ কোটি টাকার প্রকল্প ও গৌরীপুর-আনন্দগঞ্জ-মধুপুর-দেওয়ানগঞ্জ- হোসেনপুর সড়ক প্রশস্তকরণ সড়ক এখন একনেকে, ভারতীয় সীমান্ত সড়ক প্রকল্পের নেতাই ও সুমেশ্বরী নদী ও অন্যান্য খালসহ ১৭ ছোট বড় ব্রীজ নির্মাণে প্রকল্প এখন একনেকের অনুমোদনের অপেক্ষায়।
ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ১৩ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের কার্যালয়ে কেক কাটা ও এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।
এ অঞ্চলের সম্ভবনাময় ব্রহ্মপূত্র নদের খননকৃত অফুরন্ত মাটি দিয়ে দেওয়ানগঞ্জ-জামালপুর-ময়মনসিংহ-টোক-ভৈরব বাজার পর্যন্ত প্রায় ২৮৩ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ব্রহ্মপূত্র তীরবর্তী নদের সরকারি জমিতে কমপক্ষে দুইশত ফুট প্রশস্ত করে বাধঁ কাম মহাসড়ক নির্মাণ এবং নদের তীরে বিশাল চরাঞ্চলের অনাবাদি জমিতে শিল্প-কারখানা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শিল্পবিপ্লব ঘটানোর অফুরন্ত সুযোগ রয়েছে। ময়মনসিংহ বিভাগের ইতিহাস ঐতিহ্য পুরুজ্জীবন ও সামাজিক সাংস্কৃতিক বন্ধনকে আরো সুদৃঢ় করতে জনগুরুত্বপূর্ণ ও সুনির্দিষ্ট দাবীগুলো পূরণ করার জন্য ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনসহ এই বিভাগীবাসী প্রধানমন্ত্রীর কাছে জোর দাবী জানিয়েছেন।
১৩ অক্টোবর, মঙ্গলবার ২০২০ ময়মনসিংহ বিভাগের ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার দাবীতে দীর্ঘ প্রায় ২৬ বছর আন্দোলন সংগ্রামের পর অবশেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহ, জামালপুর, নেত্রকোণা, শেরপুর এই চারটি জেলা সমন্বয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৫ সনের ১৩ অক্টোবর বিভাগ গঠনের গেজেট প্রকাশিত হয়। বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমন্বয়ে ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার প্রস্তুতি ছিলো কিন্তু শেষ মুহুর্তে কিশোরগঞ্জ ও টাঙ্গাইল জেলা ময়মনসিংহ বিভাগে অন্তর্ভূক্ত না হওয়ায় বৃহত্তর ময়মনসিংহের ইতিহাস ও ঐতিহ্যখন্ডিত রয়ে গেল। ভবিষ্যতে কিশোরগঞ্জ ও টাঙ্গাইল জেলাও ময়মনসিংহ বিভাগের সাথে অন্তর্ভূক্ত হবে বলে দৃঢ় আশা পোষন করেন ময়মনসিংহ বিভাগ বাস্তবায়নের নেতৃত্বদানকারী সংগঠন ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য, ব্রিটিশ সরকার ১৭৮৭ সালের ১ মে ময়মনসিংহ জেলা এবং ১৮২৯ সালে ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠা করে। ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠার ১৮৬ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর ময়মনসিংহকে বাংলাদেশের অষ্টম প্রশাসনিক বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

শেরপুর পৌরসভা যাদুঘর উদ্বোধন

শেরপুর প্রতিনিধি: দের শত বছরের পুরোনো ঐতিহ্যবাহী ও প্রচীণ শেরপুর পৌরসভার আয়োজনে ‘শেরপুর পৌরসভা যাদুঘর’ উদ্বোধন করা হয়েছে।২৫ নভেম্বর...

ভ্যাকসিন আনার ব্যাপারে সরকার প্রস্তুতি নিয়েছে: কাদের

আ.জা. ডেক্স: আন্তর্জাতিক বাজারে ভ্যাকসিন আসা মাত্রই বাংলাদেশের জনগণ যাতে সহজেই পায় সে ব্যাপারে সরকার সব প্রস্তুতি গ্রহণ...

চলে গেলেন নাট্য ব্যক্তিত্ব আলী যাকের

আ.জা. ডেক্স: বাংলাদেশের নন্দিত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের চলে গেলেন না ফেরার দেশে। গতকাল শুক্রবার ভোর ৬টা ৪০...

স্থানীয় দালাল ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় রোহিঙ্গারা ভুয়া পরিচয়ে পাসপোর্ট করতে মরিয়া

আ.জা. ডেক্স: স্থানীয় দালাল ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় মিয়ানমারের সহিংসতায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা ভুয়া পরিচয়ে পাসপোর্ট করতে মরিয়া...

Recent Comments