Thursday, February 22, 2024
Homeজাতীয়যাত্রী পেলে বাস ছাড়বে এনা পরিবহন

যাত্রী পেলে বাস ছাড়বে এনা পরিবহন

মহাখালী বাস টার্মিনালে নেই যাত্রীদের সরব উপস্থিতি, প্রায় কাউন্টারগুলোই বন্ধ। সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে বিএনপি-জামায়াতের ৪র্থ দফার ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়েছে রোববার সকাল ৬টা থেকে। সেকারণেই এমন অবস্থা বিরাজ করছে রাজধানীর ব্যস্ততম এই বাস টার্মিনালে।

তবে যখন দূরপাল্লার বাসগুলো বন্ধ, অন্য কোনো কাউন্টারও খোলেনি তখন শুধুমাত্র নিজেদের কাউন্টার খুলে বসে আছে এনা পরিবহন। তাদের বাসগুলোও সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে আছে কাউন্টারের সামনেই। দুই চারজন যাত্রীও আসছে, বিক্রি হচ্ছে টিকিটও। এনা পরিবহন কাউন্টার থেকে জানানো হচ্ছে, যাত্রী হলেই তাদের বাসগুলো মহাখালী থেকে ছেড়ে যাবে। সব মিলিয়ে যাত্রীর অপেক্ষায় আছে এনার বাসগুলো।

মহাখালী বাস টার্মিনালে এনা পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার শুভ আহমেদ বলেন, যাত্রী হলেই আমাদের ময়মনসিংহগামী বাসগুলো এখানে থেকে ছেড়ে যাবে। আমারা এখান থেকে ময়মনসিংহের টিকিট বিক্রি করছি। আমাদের টিকিট মূল্যে আগের মতোই আছে, কোনো ভাড়া বাড়ানো হয়নি। বেশ কিছু যাত্রী ইতিমধ্যে হয়েছে। বাস পরিপূর্ণ হলেই আমরা বাসগুলো এক এক করে ছেড়ে দেব। এছাড়া সামনে আমাদের সিলেটগামী বাসের কাউন্টারও খোলা আছে, সেখান থেকেও আমাদের ছাড়বে।

এদিকে রাজধানীর আজিমপুর থেকে মহাখালী বাস টার্মিনালে এসেছেন ময়মনসিংহ যাওয়ার যাত্রী নাজিম উদ্দিন। তিনি বলেন, শুনেছিলাম অবরোধে এনা পরিবহনের বাস শুধু চলছে ময়মনসিংহ রুটে। সে অনুযায়ী আজ সকালে এনা পরিবহনে কল করলে, তারা জানিয়েছে তাদের বাস আজও চলবে। সে কারণেই মহাখালী বাস টার্মিনালে চলে এসেছি। জমি জমা সংক্রান্ত একটি কাজের জন্য জরুরিভাবে বাড়িতে যেতে হচ্ছে। এখানে এসে এনা পরিবহনের কাউন্টার থেকে জানাল তাদের বাস রেডি আছে, যাত্রী হলেই ছেড়ে দেবে। ইতিমধ্যে ১০/১২ জন যাত্রী হয়েছে এই বাসের। তারা টিকিটও বিক্রি করছে, আর আমরা টিকিট নিয়ে অপেক্ষায় আছি বাস ছাড়ার। তবে মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে এনা পরিবহন ছাড়া দূরপাল্লার কোনো বাস ছাড়ছে না, এটা দেখলাম।

এদিকে সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে বিএনপি-জামায়াতের ৪র্থ দফার ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি শুরুর আগেই শনিবার রাতে রাজধানীতে ৭টি বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। শনিবার (১১ নভেম্বর) রাত ৮টা ২০ মিনিটে মতিঝিলে নটর ডেম কলেজের সামনে, ৮টা ৩০ মিনিটে গাবতলী বাসস্ট্যান্ডের সামনে, রাত ৯টার দিকে গুলিস্তানে সুন্দরবন স্কয়ারের সামনে, রাত সাড়ে ৯টায় যাত্রাবাড়ী ফল-পট্টির সামনে, রাত ১১টার দিকে আগারগাঁও তালতলা এলাকায় ও শেরেবাংলা নগর থানার পঙ্গু হাসপাতালের সামনে এবং ১১টা ৪০ মিনিটে কাফরুল থানার বিপরীতে যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এসব ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

এর আগে, সরকারের পদত্যাগ, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ও খালেদা জিয়াসহ কারাবন্দিদের মুক্তির দাবিতে গত বুধবার (৮ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার (১০ নভেম্বর) সকাল ৬টা পর্যন্ত অবরোধের ঘোষণা দেয় বিএনপিসহ সমমনা বিরোধী দলগুলো। তাদের ডাকা তৃতীয় দফার ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শেষ হয় শুক্রবার সকাল ৬টায়।

Most Popular

Recent Comments