Thursday, May 26, 2022
Homeদেশজুড়েজেলার খবররৌমারীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

রৌমারীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

রৌমারী সংবাদদাতা:

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় বালু ব্যবসায়ী চক্র ব্রহ্মপুত্র নদ-নদীসহ বিভিন্ন স্থান থেকে অবৈধভাবে ড্রেজারে বালু উত্তোলনে মরিয়া হয়েছে এক শ্রেণীর প্রভাবশালী মহল, প্রশাসন নির্বিকার। ফলে বর্ষা মৌসুমে পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে তীব্র স্রোতে বেড়ে যাবে ব্রহ্মপুত্র নদের তীর ভাঙ্গন। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ঠেকাতে না পারলে নদের বামতীর সংরক্ষণ চলমান কাজের ব্যাঘাত ঘটবে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল ২১ এপ্রিল (বুধবার) বেলা ১১টার দিকে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে ব্রহ্মপুত্র নদের কয়েকটি স্থানে একটি চক্র ব্রহ্মপুত্র নদের ঘুঘুমারী থেকে বলদমারা হয়ে ফলুয়ারচর ও কর্ত্তিমারী নৌকাঘাট এবং আরো অন্যান্য স্থান থেকে প্রতিদিন ড্রেজার মালিক আব্দুল বাছেদ, এরশাদ আলী, ময়নাল হক, সিরাজুল ইসলামসহ অনেকেই উত্তোলনকৃত বালু পরিবহন করে বিক্রয় করছে। এতে একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় জমজমাট ভাবে বালু ব্যবসায়ীরা লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ক্ষতি সাধিত হচ্ছে নদের পূর্বতীর, খাল বিলের উপর বসত বাড়ি ও জমি জিরাত।

বলদমারা ঘাটে থাকা অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে প্রত্যক্ষদর্শী আলতাফ হোসেন, সাজেদুল ইসলাম, রাশেদুল, আব্দুস সামাদ, জাইদুল ইসলামসহ অনেকেই জানান, বলদমারা নৌকা ঘাট থেকে ঘুঘুমারী নৌকাঘাট পর্যন্ত নদী থেকে যে অবৈধভাবে বালু তোলা হচ্ছে, এভাবে বালু তোলা অব্যাহত থাকলে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে ফসলি জমিসহ প্রায় ১৭ টি গ্রাম হুমকির মুখে পড়বে এবং বিলিন হয়ে যাবে ঘরবাড়ি। বালু ব্যবসায়ী চক্রদেরকে গ্রামবাসীরা বাধা দিলে তাদেরকেও নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখায়।
বন্দবেড় ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা রজব আলীকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের ড্রেজার মেশিন বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমাকে ইউএনও স্যার বলদমারা ঘাটে ড্রেজার বন্ধ করার জন্য পাঠিয়েছে। আমি ড্রেজার গুলি বন্ধ করে দিয়েছি। পরবর্তিতে ইউএনও স্যার অবৈধ ড্রেজার বন্ধের আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরানকে ড্রেজারের মাধ্যমে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি জানান, প্রায় দিনই অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের ড্রেজার মেশিন গুলি বন্ধ করে আসছি, কিন্তু কতবার আর এগুলোর পিছনে দৌড়াবো। আমি হয়রান হয়ে গেছি। আমার এদের প্রতি ধর্য্যরে বাধ ভেঙ্গে গেছে। তার পরেও ড্রেজার বন্ধ করার জন্য বন্দবেড় ইউনিয়ন তহশিলদার রজব আলীকে পাঠিয়েছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments