Saturday, October 1, 2022
Homeজাতীয়লকডাউনের খবরে মহাখালী বাস টার্মিনালে ভিড়

লকডাউনের খবরে মহাখালী বাস টার্মিনালে ভিড়

আ. জা. ডেক্স:

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় এক সপ্তাহের জন্য সারা দেশে লকডাউনে যাচ্ছে সরকার। আগামী ৫ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত সব প্রকার গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন বেশির ভাগ মানুষ। গতকাল রোববার সকাল থেকে রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালে যাত্রীদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। সকালে মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে গাজীপুর, ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর, রাজশাহী, রংপুর, গাইবান্ধার উদ্দেশে থেকে বাস ছেড়ে যায়। সরেজমিনে দেখা যায়, মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে বাসে প্রবেশের শুরুতে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার ও মাস্ক পরার জন্য বার বার সচেতন করা হচ্ছে। এমনকি বার বার মাইকিং করে স্বাস্থ্যবিধি মানতে সচেতন করা হচ্ছে। মহাখালী বাস টার্মিনালে বেশ কয়েকজন যাত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঢাকা থেকে জামালপুর পর্যন্ত দুই সিটে একজন হিসেবে সাড়ে ৫০০ টাকা করে নিচ্ছেন। সরকারের নির্ধারিত ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়লেও অর্ধেকের বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে বাস কাউন্টারে। আগের হিসেবে জামালপুর পর্যন্ত যেতে ২২০ থেকে ২৫০ টাকা নেওয়া হতো। আর এখন নেওয়া হচ্ছে সাড়ে ৫০০ টাকা। জামালপুর যাওয়ার উদ্দেশে আসা যাত্রী মো. খলিলুর রহমান বলেন, এক সপ্তাহ আগেও আমরা এ বাসে জামালপুর গিয়েছি। তখন ২০০ টাকা নিয়েছে। এখন সাড়ে ৫০০ টাকা ছাড়া টিকিটই দিচ্ছে না। এটা আমার জন্য অনেক বেশিই। তবু নিজের তাগিদে যেতে হচ্ছে। শুনেছি আজ সোমবার সারা দেশে লকডাউন। তাই আজ বাড়তি ভাড়া দিয়ে না গিয়ে উপায় নেই। বাসের চালক মো. দুলাল বলেন, এখানে যাত্রীর চাপ থাকলেও আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যাত্রী নিচ্ছি। আমরা বাসে ২৫ জনের বেশি নিচ্ছি না। আমাদের দুই সিটের মধ্যে একজন করে বসছে। তাই আমরা দুই সিটের ভাড়া নিচ্ছি। নেত্রকোনায় যাবেন কবির হোসেন। তিনি বলেন,

আজ সোমবার থেকে লকডাউন। ঢাকায় তেমন কোনো কাজ নেই। তাই গ্রামে যাচ্ছি। এনা ট্রান্সপোর্টের কাউন্টারে ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ রেগুলার ভাড়া ২২০ টাকা। এ প্রতিষ্ঠান ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়িয়ে টিকিট বিক্রি করছে ৩৫০ টাকা। তারা যাত্রীর মাস্ক না থাকলে টিকিট দিচ্ছে না। এনা টিকিট কাউন্টার থেকে জানানো হয়, অন্যদিনের চেয়ে যাত্রীর চাপ বেশি। বিকেল থেকে যাত্রীর চাপ আরও বাড়বে। অর্ধেক যাত্রী নিয়েই বাস চলছে। এনা ট্রান্সপোর্টের ৬১ নম্বর গাড়ির যাত্রী নাইম বলেন, ময়মনসিংহ যাবো। সেখানে চাকরি করি। টিকিট কেটে দেখি ৫৮ নম্বর গাড়ি গেল। আমার ৬১ নম্বর গাড়ির সিরিয়াল। আরও দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments