Saturday, August 13, 2022
Homeশেরপুরশেরপুরের বিএডিসির সোলার প্লান্টে আশার আলো দেখছে কৃষকরা

শেরপুরের বিএডিসির সোলার প্লান্টে আশার আলো দেখছে কৃষকরা

শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুরের নালিতাবাড়ীর চেল্লাখালী নদীর উপর নির্মিত রাবার ড্যামের উজানে হাইড্রোলিক স্ট্রাকচারের উপর ৫ কিউসেক ক্ষমতা সম্পন্ন পরীক্ষামূলক সোলার ইরিগেশন পাম্পিং সিস্টেম চালু হয়েছে সম্প্রতি। কৃষকরা অল্প খরচে এই সুবিধা পাওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেন। ফলে ভবিষ্যতে সল্প খরচে সেচ সুবিধার মাধ্যমে কৃষকরা তাদের ফসল ফলাতে আশার আলো দেখছেন।

বিএডিসি সূত্রে জানাগেছে, জলবায়ু পরিবর্তনে কৃষি উৎপাদনে ঝুকি মোকাবেলায় বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসি ১৪ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মাণ করেছে নালিতাবাড়ি উপজেলার চেল্লাখালি নদীর উপর রাবার ড্যাম। তারই উজানে চেল্লাখালী নদীর উপর ১ কোটি ৩৮ লাখ ৫৯ হাজার ১শত ২৪ টাকা ব্যায়ে নির্মিত হয় হাইড্রোলিক স্ট্রাকচারের উপর ৫ কিউসেক ক্ষমতা সম্পন্ন পরীক্ষামূলক সোলার ইরিগেশন পাম্পিং সিস্টেম। এই পাম্পের মাধ্যমে স্থানীয় কৃষকরা পানি নিয়ে তাদের ইরিগেশনের কাজ করছেন। আগামীতে বিদ্যুৎ চালিত পাম্প না ব্যবহার করে সল্প খরচের সোলারে মর্টার বা পাম্প চালিয়ে তাদের ইরগেশন কাজ করতে সহজ হবে।
পরিক্ষামূলক এই প্রকল্পের পাম্প হাউজের দায়িত্বে থাকা মন্টু মিয়া জানান, সোলার পাম্পের সাহায্যে ছয় ঘন্টা চালানো যায়। এটা যদি দশ ঘন্টা চালানো যায় তাহলে আরো বেশী সুবিধা পাওয়া যেত বলে মনে করেন। প্রকল্পটি পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হলে সেচ সুবিধা পাবে হাজারো কৃষক।

প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু আহম্মেদ মাহমুদুল হাসান জানায়, সোলার পাম্প ও রাবার ড্যামের জমাকৃত ভূ-উপরস্ত পানির কারণে আস্তে আস্তে এই এলাকার হাজারো কৃষক সেচ সুবিধা পাবে। এই প্রকল্পের আওতায় ১০টি ডিজেল চালিত, ৮টি বৈদ্যতিক মর্টার ও ১টি পাম্প হাউজের মাধ্যমে ভূ-উপরস্ত পানির মাধ্যমে একটি পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে প্রায় এক হাজার কৃষক সেচ সুবিধা পাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments