Thursday, August 18, 2022
Homeজামালপুরসংক্রমন বেড়ে গেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু...

সংক্রমন বেড়ে গেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি

আসমাউল আসিফ:

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি বলেছেন, গত বছরের মার্চ মাস থেকে করোনা সংক্রমনের কারনে পাঠদান বন্ধ ছিল, কিন্তু শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা বন্ধ ছিলনা। অনলাইন, টেলিভিশন এবং অ্যাসাইমেন্টের মাধ্যমে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। আগামীকাল থেকে সারাদেশে মুখোমুখি শ্রেণীকক্ষে পাঠদান শুরু করা হচ্ছে। সেখানে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হবে, যাতে করে সংক্রমন না বাড়ে, সে বিষয়টি মাথায় রেখেই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আশা করছি সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে, সংক্রমন বাড়বে না। যদি কোন কারনে দেখা যায় সংক্রমন বাড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে, তাহলে প্রথমে সংক্রমন রোধে ব্যবস্থা নিবো। যদি তারপরও সংক্রমন বেড়ে যায় তাহলে অবশ্যই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে। বিশ্বের অনেক দেশই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় আবার তা বন্ধ করে দিয়েছে। আমরাও শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে অবশ্যই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিবো। শনিবার দুপুরে জামালপুরে পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার নীতিমালা করা হয়েছে এবং সেটি স্থানীয় ও কেন্দ্রীয়ভাবে মনিটরিং করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সেটি না মানে, অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারন কোনভাবেই শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যর বিষয়টি আমরা অবহেলা করতে পারিনা। তিনি বলেন, দেশে অনেক শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়েছে এমন কথা অনেকেই বলছে। কিন্তু আমরা যখন অ্যাসাইনমেন্ট দিয়েছি, তখন দেখেছি, শতকরা ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী অ্যাসাইনমেন্টে অংশগ্রহণ করেছে। সেক্ষেত্রে যেভাবে আশঙ্কা করা হচ্ছে শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়েছে, সেটি আসলে সত্য নয়। এখন যখন সবাই শ্রেনী কক্ষে ফিরে আসতে শুরু করবে এবং যারা আসবেনা তাদের আমরা পারিবারিকভাবে খোঁজ নিয়ে নিশ্চিত করা হবে কেন তারা আসছেনা। তারপরই কিন্তু আমরা জানতে পারবো আসলেই শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়েছে কিনা বা কতটুকু শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়েছে নিশ্চিত হতে পারবো।

শহরের ফৌজদারি মোড়ে জামালপুর পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুম রেজা রহিমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী এমপি। এছাড়াও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি, আবুল কালাম আজাদ এমপি, মোজাফফর হোসেন এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments