Thursday, September 23, 2021
Home জাতীয় সিলিন্ডার পরীক্ষার বাধ্যবাধকতা মানছে না সিএনজিচালিত যানবাহনের মালিকরা

সিলিন্ডার পরীক্ষার বাধ্যবাধকতা মানছে না সিএনজিচালিত যানবাহনের মালিকরা

আ.জা. ডেক্স:

গাড়ির গ্যাস সিলিন্ডার পরীক্ষার বাধ্যবাধকতার তোয়াক্কা করছে না যানবাহনের মালিকরা। কোনো ধরনের ত্রæটি না থাকলেও পাঁচ বছর পরপর সিলিন্ডার পরীক্ষা করানোর বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু গত দুই বছরে মাত্র সাড়ে ৭ হাজার সিলিন্ডার পুনঃপরীক্ষা হয়েছে। তার বিপরীতে প্রথম বা সর্বশেষ পরীক্ষার ৫ বছর বা তারও বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে এমন গাড়ির সংখ্যা আড়াই লাখেরও বেশি। মেয়াদোত্তীর্ণ ওসব সিলিন্ডারে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। বিগত ২০১৮ সালের ডিসেম্বর নাগাদ সিলিন্ডার পুনঃপরীক্ষা করা গাড়ির সংখ্যা ছিল ৯১ হাজার ৭৭১টি। ওই সংখ্যা ২০২০ সালের ডিসেম্বরে ৯৯ হাজার ২৬৯টিতে বেড়ে দাঁড়ায়। আড়াই লাখেরও বেশি গাড়ির সিএনজি সিলিন্ডার মেয়াদোত্তীর্ণ থাকলেও গাড়ির মালিকরা সে ব্যাপারে আগ্রহ দেখাচ্ছে না। মূলত সিএনজিচালিত যানবাহন মালিকদের অসচেতনতার কারণেই দুর্ঘটনা বাড়ছে। রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানি লিমিটেপ (আরপিজিসিএল) সংশ্লিষ্ট সুত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, অতিসম্প্রতি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দিতে একটি চলন্ত বাসে আগুন ধরে যায়। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ধারণা, বাসের গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। ওই একই দিন একই মহাসড়কের গজারিয়ায় আরেকটি বাসে আগুন লাগে। তাতে কারো মৃত্যু না হলেও বাস থেকে তাড়াহুড়ো করে নামার সময় ৫ যাত্রী আহত হয়। সেখানেও আগুনের সূত্রপাত গ্যাস সিলিন্ডার থেকে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, যানবাহনের সিলিন্ডার দীর্ঘদিন ধরে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও মেরামত না করার কারণেই এমন ধরনের দুর্ঘটনা বাড়ছে। যানবাহন সিএনজিতে রূপান্তর করার পর প্রতি ৫ বছরে একবার সিলিন্ডার পুনঃপরীক্ষা করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তা করা হয় কিনা বিস্ফোরক অধিদপ্তরের সেটা দেখার দায়িত্ব।

সূত্র জানায়, দেশে এখন নতুন করে খুব বেশি যানবাহন সিএনজিতে রূপান্তর করা হচ্ছে না। পাশাপাশি সিএনজিচালিত যানবাহন আমদানিও তুলনামূলক কমে গেছে। বিগত ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে দেশে সিএনজিতে রূপান্তরিত যানবাহনের সংখ্যা ছিল ২ লাখ ৭০ হাজার ২৩৯টি। সিএনজি ফুয়েল সিস্টেমের যানবাহন আমদানির সংখ্যা ছিল ৪০ হাজার ৩৮৩টি। আর সিএনজিচালিত থ্রি-হুইলার ছিল ১ লাখ ৯৩ হাজার ২৪২টি। সব মিলিয়ে ওই সময় ৫ লাখ ৩ হাজার ৮৬৪টি সিএনজিচালিত গাড়ি ছিল। দুই বছর পর বর্তমানে ওই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৪ হাজার ৭৮৩টিতে।

সূত্র আরো জানায়, গাড়ির গ্যাস সিলিন্ডারের কয়েকটি জিনিস রক্ষণাবেক্ষণ খুবই জরুরি। সব সময় সিলিন্ডারের প্রেসার ঠিক রাখতে হয়। সেজন্যই প্রতি ৫ বছর পর তা পরীক্ষা করানোর নিয়ম। সিলিন্ডারের ভাল্ব (মুখ) ঠিকমতো বন্ধ আছে কিনা সেটি নিয়মিত দেখা জরুরি। পাশাপাশি তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণেরও একটা ব্যাপার থাকে। কোনো যানবাহনে যদি মেয়াদোত্তীর্ণ বা অপরীক্ষিত সিলিন্ডার থাকে, তার যে কোনো একটাতে সমস্যা হতে পারে। কানেকশন দুর্বল হয়ে যেতে পারে, গরম হয়ে যেতে পারে। যে কোনো সময় সেই সিলিন্ডারটি বিস্ফোরিত হতে পারে।

এদিকে এ প্রসঙ্গে আরপিজিসিএলের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতিটা জিনিসেরই একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। সিলিন্ডারের ক্ষেত্রেও ঠিক তাই। প্রতি ৫ বছর পরপর সিলিন্ডার পরীক্ষার নিয়ম থাকলেও এদেশের বেশির ভাগ মানুষই তা মানে না। অথচ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) বিআরটিএ ফিটনেস পরীক্ষার সময়ই এ কাজ করতে পারে।

অন্যদিকে এ প্রসঙ্গে বিস্ফোরক পরিদপ্তরের প্রধান বিস্ফোরক পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, কাজটি করার জন্য বিস্ফোরক পরিদপ্তরের প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা নেই। এ প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে ঢাকা ও দেশের আরো ৫টি বিভাগীয় অফিসে সব মিলিয়ে ৫৪ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছে। ঢাকাসহ সারাদেশে পরিদপ্তরের মাত্র ৬ জন বিস্ফোরক পরিদর্শক রয়েছে। এতো সীমিতসংখ্যক জনবল দিয়ে সব কাজ করা সম্ভব হয় না। সেজন্য পরিদপ্তরের নতুন একটি জনবল কাঠামো প্রস্তাব করা হয়েছে। তাতে ১ হাজার ১১৫ জনের একটি সাংগঠনিক কাঠামো প্রস্তাব করা হয়েছে। আর তা অনুমোদন পেলে বিস্ফোরক পরিদপ্তরের কার্যক্রম আরো গতিশীল হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

ময়মনসিংহে লোডশেডিং দেড়শ’ মেগাওয়াট : নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে মতবিনিময়

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ : দীর্ঘদিন পর লকডাউন তুলে নেয়ার পর ময়মনসিংহের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা হলেও প্রতিদিন অসংখ্য বার...

ডিজিটালাইজেশনের বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে সচেতনতার অভাব: মোস্তাফা জব্বার

ময়মনসিংহ ব্যুরো : ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটালাইজেশনের বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে সচেতনতার অভাব।জনগণকে ডিজিটাল প্রযুক্তির...

সরিষাবাড়ীতে নিখাই গ্রামে গণপাঠাগার উদ্বোধন

আসমাউল আসিফ: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, গ্রামে গ্রামে পাঠাগার’ এই শ্লোগানে সুর সম্রাট আব্বাস উদ্দিনের স্মৃতি বিজড়িত নিখাই...

সংক্রমন বেড়ে গেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি

আসমাউল আসিফ: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি বলেছেন, গত বছরের মার্চ মাস থেকে করোনা সংক্রমনের কারনে পাঠদান বন্ধ ছিল,...

Recent Comments