Friday, December 9, 2022
Homeজাতীয়হেফাজতের জুনায়েদ দশ ও জালাল ছয়দিনের রিমান্ডে

হেফাজতের জুনায়েদ দশ ও জালাল ছয়দিনের রিমান্ডে

আ.জা. ডেক্স:

হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি জুনায়েদ আল হাবিবকে ১০ দিন এবং বিলুপ্ত কমিটির সহকারী মহাসচিব ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমাদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ছয়দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী এ রিমান্ডের আদেশ দেন। গত ১৮ এপ্রিল এ দুজনের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। সেই রিমান্ড শেষে সোমবার তাদের আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় জুনায়েদ আল হাবিবের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় গত ২৬ মার্চ বায়তুল মোকাররমে সংঘর্ষের ঘটনায় পল্টন থানার দুটি মামলায় মোট ১৭ দিন (একটিতে ১০ ও একটিতে ৭ দিন) এবং ২০১৩ সালের শাপলা চত্বরে অবস্থানকে ঘিরে সহিংসতার ঘটনায় মতিঝিল থানায় একটি মামলায় ১০ দিন করে মোট ২৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আসামিপক্ষে সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেসবাহ রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক পল্টনের দুই মামলার একটিতে চারদিন, একটিতে তিনদিন এবং মতিঝিলের মামলায় তিনদিন করে মোট ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

অপরদিকে, মাওলানা জালালুদ্দীনের বিরুদ্ধে শাপলা চত্বর কান্ডে মতিঝিলের মামলায় ১০ ও বায়তুল মোকাররমে গত ২৬ মার্চ সংঘর্ষের ঘটনায় ৭ দিন করে ১৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক দুই মামলায় তিনদিন করে ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দেন দেন। এদিন এসব মামলায় হেফাজতের সদ্য বিলুপ্ত যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককেও সাত দিনের রিমান্ডে পাঠান একই আদালত। গত ১৭ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে জুনায়েদ হাবিবকে ভাটারা থানার বারিধারা মাদরাসা থেকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পুলিশ জানায়, স¤প্রতি পল্টন থানায় নাশকতা মামলা এবং ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে নাশকতার মামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে জুনায়েদ হাবিবকে। সে কারণেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর আগে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানানো সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে হেফাজতে ইসলাম। এ নিয়ে ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকাসহ চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সরকারি বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা-ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে। এসব ঘটনায় দায়ের করা মামলায় এরইমধ্যে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় আট জন নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments