Thursday, July 29, 2021
Home জামালপুর জামালপুরে প্রধানমন্ত্রীর মুজিববর্ষের উপহার পেল ভূমিহীন মিনা

জামালপুরে প্রধানমন্ত্রীর মুজিববর্ষের উপহার পেল ভূমিহীন মিনা

এম.এ.রফিক :

আশ্রয়নের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুজিববর্ষে জামালপুর সদর উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ৪শ ঘর পাচ্ছে সদর উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের বাসিন্দাগণ। এরই একটি ঘরের মালিক হয়েছে জামালপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের কুটামনি গ্রামের অসহায় মিনা (১৮)। সে কেন্দুয়া ইউনিয়নের বিনন্দের পাড়ায় সরকারী জমিতে গড়ে ওঠা ৮টি ঘরের মধ্যে একটি ঘর পেয়েছে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে। মিনা স্বামী পরিত্যাক্তা। রয়েছে তার সন্তান। কিন্তু নেই কোন বাড়ি ঘর। সে রাজমিস্ত্রীদের সাথে যোগালীর কাজ করে জীবিকা অর্জন করে আসছে। তার বিষয়ে জানতে পেরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হকের নির্দেশে তাকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সরকারী ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়। গত বৃহস্পতিবার কেন্দুয়া ইউনিয়নের বিনন্দেরপাড়ায় গড়ে ওঠা প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর সরেজমিনে পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আরিফুর রহমান, কেন্দুয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মাহবুবুর রহমান মঞ্জু, কেন্দুয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিববর্ষ উপলক্ষে গৃহহীন, ভূমিহীন, হতদরিদ্র মানুষের জন্য ঘর নির্মাণ কাজ চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় জামালপুর সদর উপজেলায় ৪শ ঘর নির্মাণ হচ্ছে। এই ঘর নির্মাণে কেউ যদি অনিয়ম, দূর্নীতি করার চেষ্টা করে তবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার। এছাড়া ঘরপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের সাথে মত বিনিময় করেন জেলা প্রশাসক।

ঘর পেয়ে অসহায় মিনা বলেন, আমার স্বামী নেই। আমি খুবই কষ্টে দিন যাপন করে আসছি। ইউএনও ম্যাডাম আমার বিষয়টি জানতে পেরে ডিসি স্যারকে বলে আমাকে একটি ঘরের ব্যবস্থা করে দিয়েছে। আমি তাদের প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ। সেই সাথে প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করছি তিনি যেন দীর্ঘজীবি হোন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন বলেন, মিনার বিষয়টি জানতে পেরে ডিসি স্যারের নির্দেশে মিনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার একটি সরকারী ঘরের ব্যবস্থা করেছি। এতে সে খুব খুশি। আশা করি এভাবেই সদর উপজেলার অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে পারব আমরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

জামালপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান : জরিমানা আদায়

এম.এ.রফিক: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউনের নির্দেশনা না মানায় জামালপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গতকাল মঙ্গলবার ভ্রাম্যমান আদালতের...

জামালপুর পৌর মেয়রের নির্দেশে ভেঙে দেওয়া হলো নিম্নমানের প্যালাসাইডিং

নিজস্ব সংবাদদাতা: জামালপুর পৌরসভার একটি প্যালাসাইডিং এর নির্মাণ কাজ নিম্নমানের হওয়ায় পৌর মেয়রের নির্দেশে তা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে পৌর...

জামালপুরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের ২৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিনিধি: নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জামালপুরে পালিত হয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।এ উপলক্ষে মঙ্গলবার...

বকশীগঞ্জে লকডাউনের পঞ্চম দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১৪ মামলা

বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি: বকশীগঞ্জে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিনে বিধিনিষেধ মানাতে তৎপর উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার সরকারি আদেশ অমান্য করে...

Recent Comments